শিরোনাম
২৫ এপ্রিল, ২০২৪ ২১:০৩

মেহেরপুরে মানব পাচারের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

মেহেরপুর প্রতিনিধি

মেহেরপুরে মানব পাচারের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

মেহেরপুরে মানব পাচারের দায়ে জাহিদুল মেম্বার ওরফে জাহিদুল হক নামে একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১০ লক্ষ টাকা জরিমানার রায় দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে মেহেরপুর মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক তহিদুল ইসলাম এ রায় দেন।

আসামি পলাতক থাকায় তার অনুপস্থিতিতে এ রায় দেওয়া হয়। সাজাপ্রাপ্ত জাহিদুল হক চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদরের উত্তর উজিলপুর গ্রামের মাহাতাব উদ্দিনের ছেলে। মামলায় রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী ছিলেন পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি)এ. কে. এম. আসাদুজ্জামান।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ভুক্তভোগী রেবা খাতুন ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে চাকরির সুবাদে আসামি জাহিদুল মেম্বার ওরফে জাহিদুল হকের সাথে পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে জাহিদুল রেবাকে ৫০ হাজার টাকায় জর্ডানে ভাল চাকরির প্রস্তাব দেন। সরল বিশ্বাস রেবা খাতুন জাহিদুলের হাতে ৫০ হাজার টাকা তুলে দেন। পরে ২০১৪ সালের ১০ অক্টোবর রেবা খাতুনকে জর্ডানে পাঠানোর উদ্দেশ্যে ঢাকায় নিয়ে যান। ৪ দিন পর রেবাকে রেখে জাহিদুল চলে যায়। পরে রেবা খাতুন টাকা ফেরত চাইলে জাহিদুল টাকা ফেরত দিতে অস্বীকার করেন। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে রেবা খাতুনকে মানব পাচারের অভিযোগে রেবার ভাবি গাজু খাতুন আসামি জাহিদুল হকের বিরুদ্ধে মেহেরপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলাটি মেহেরপুর সদর থানার তৎকালীন এসআই দুলু মিয়া ও এসআই ফারুক হোসেন তদন্ত করেন। তদন্ত শেষে আসামি জাহিদুল হকের বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন, ২০১২ এর ৬, ৭ ও ৮ ধারায় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

বিডিপ্রতিদিন/কবিরুল

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর