শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২২:২৬

বলিউডের সবচেয়ে দামি তারকা

আলী আফতাব

বলিউডের সবচেয়ে দামি তারকা

সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে ২০২০ সালের পারফরম্যান্স আর আয়ের নিরিখে এ বছরের ‘সেলিব্রেটি ব্র্যান্ড ভ্যালুয়েশন স্টাডি’। রিপোর্টে উঠে এসেছে ‘ব্র্যান্ড ভ্যালু’র নিরিখে সেরা ১০ সেলিব্রেটি তারকার নাম। সে তালিকার দ্বিতীয় থেকে দশম-৯ জনই বলিউড থেকে। প্রথমজন প্রত্যক্ষভাবে বলিউডের কেউ না হলেও পরোক্ষভাবে বলিউডের জামাই বিরাট কোহলি।

তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন বলিউড তারকা অক্ষয় কুমার। তার ব্র্যান্ড ভ্যালু ১০ কোটি ৪৫ লাখ মার্কিন ডলার থেকে এক লাফে বেড়েছে ১১ কোটি ৮৯ লাখ মার্কিন ডলারে। অর্থাৎ ব্র্যান্ড ভ্যালু বেড়েছে ১৩ দশমিক ৮ শতাংশ। ১০ কোটি ২ লাখ মার্কিন ডলার সমমূল্যের ব্র্যান্ড ভ্যালু নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে আছেন রণবীর সিং। ৫ কোটি ১১ লাখ মার্কিন ডলারের ব্র্যান্ড ভ্যালু নিয়ে চতুর্থ অবস্থানে শাহরুখ খান। তারপরই রয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন। তার ব্র্যান্ড ভ্যালুর পরিমাণ ৫ কোটি ৪ লাখ মার্কিন ডলার। সাফল্যের দিক থেকেও অন্য সবার চেয়ে এগিয়ে তিনি। তার পারিশ্রমিক অন্যদের থেকে বেশি হবে-এটাই স্বাভাবিক। ‘ওম শান্তি ওম’ দিয়ে রুপালি পর্দায় পা রাখা এ তারকা এখন ছবিপ্রতি ২৬ কোটি রুপি নিয়ে থাকেন। দীপিকার পরেই রয়েছেন আলিয়া ভাট। ৪ কোটি ৮০ লাখ সমমূল্যের ব্র্যান্ড ভ্যালু নিয়ে তিনি আছেন তালিকার ৬ নম্বরে। ৭ নম্বর অবস্থানে যে তারকার নাম তা অনেককে অবাক করেছে। বাঘা তারকাদের পেছনে ফেলে এই স্থানে উঠে এসেছেন তরুণ প্রজন্মের ভার্সেটাইল অভিনেতা হিট ম্যাশিনখ্যাত আয়ুষ্মান খুরানা। ২০১২ সালে ‘ভিকি ডোনার’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে আত্মপ্রকাশ। কিন্তু অন্য হিরোদের সঙ্গে এক সারিতে দাঁড়ালে তিনি আলাদা। এহেন নায়ক টিনসেলের সুপারফাস্ট স্পিডে আদৌ টিকে থাকতে পারবেন তো? এমন প্রশ্ন জেগেছিল অনেকের মনেই।

নায়ক বলতে তো গায়ে দামি ব্লেজার, ঠোঁটে বিলেতি সিগারেট। আর পাঁচজনের থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখার প্রবণতা। কিন্তু, আয়ুষ্মান তো সেসবের ধারে-কাছে যান না। হাসিমুখে সেলফি তোলেন যে কোনো ভক্তের সঙ্গে! আসলে তার মুখে ছিল হাসি, আর চোখে বড় হওয়ার স্বপ্ন। যেন আঁকড়ে ধরেছিলেন উত্তমের সেই চিরপরিচিত ডায়ালগ, ‘আই উইল গো টু দ্য টপ, দ্য টপ, দ্য টপ! আন্তর্জাতিক সমীক্ষা সংস্থা ‘ডাফ অ্যান্ড ফেলপস’-এর ‘দ্য মোস্ট ভ্যালুয়েবল’ সেলেবের তালিকায় ৬ নম্বরে নাম রয়েছে তার। গত বছর ওই তালিকায় ১০ নম্বরে ছিল তার নাম। ওই সংস্থার প্রকাশিত রিপোর্টে জানা গেছে, স্টারডম বৃদ্ধির নিরিখে অন্য সেলেবদের থেকে ৭০ শতাংশ এগিয়ে গিয়েছেন আয়ুষ্মান। ওই সমীক্ষা রিপোর্টে আরও বলা হয়, ‘অভিনেতা নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে শুধু ব্র্যান্ড এনডোর্সমেন্ট চালিয়েছেন তা নয়। বরং লকডাউনে কবিতা লিখে মনোরঞ্জন করেছেন ভক্তদের।’

এ কারণে ৬৯.৫ শতাংশ হারে বেড়েছে তার ফলোয়ারের সংখ্যা। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে যেখানে তার ১৭.৪ মিলিয়ন ফলোয়ার ছিল, সেখানে ২০২০ সালে তার অনুগামীর সংখ্যা ২৭ মিলিয়ন।’ বলাবাহুল্য, এ বছর নেটপাড়ার উজ্জ্বলতম নক্ষত্র তিনিই। ৪ কোটি ৫০ লাখ মার্কিন ডলারের মূল্যমান নিয়ে তারপরই সুপারস্টার সালমান খানের অবস্থান। অভিনয় শিখে বলিউডে আসা ব্যক্তিদের মধ্যে সালমান একজন। ১৯৮৮ সালে প্রথম সিনেমায় আসেন তিনি। শুধু অভিনয় নয়, অসাধারণ ব্যক্তিত্বসম্পন্ন মানুষও তিনি। মাঝেমধ্যেই তার অলাভজনক প্রতিষ্ঠান বিং হিউম্যানকে সঙ্গে নিয়ে নানা ধরনের সামাজিক কর্মকা- করতে দেখা যায় তাকে। বলিউডের দাবাং-খ্যাত অভিনেতা তার প্রতিটি সিনেমার জন্য ৬০-৬৫ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন। ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতাদের একজন তিনি। দেশটির প্রায় সব অঞ্চলের মানুষই ভালোবাসে তাকে।

ইংরেজি প্রবাদ প্রবচন, ‘ওল্ড ইজ গোল্ড’-এর সমার্থক শব্দ যেন তিনি। সিনেমায় অভিনয় ছাড়াও ভারতের অন্যতম বড় রিয়েলিটি শো, ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র সঞ্চালক তিনি। ভারতের অন্যতম গুণী এই অভিনেতা প্রতিটি সিনেমার জন্য ২০-২৫ কোটি রুপি পারিশ্রমিক পান। খুব অল্প ব্যবধানে সালমানের কাছে হেরেছেন ‘বিগ-বি’ অমিতাভ বচ্চন। ৩ কোটি ৯৪ লাখ মার্কিন ডলারের মূল্যমান নিয়ে দশম অবস্থানে আছেন হৃত্বিক রোশন। প্রথম সিনেমা ‘কাহোনা পেয়ার হে’ দিয়ে বক্স অফিস কাঁপিয়েছিলেন হৃত্বিক রোশন। তবে তার বলিউডে যাত্রা সেই শৈশবকাল থেকে, বেশ কয়েকটি সিনেমায় শিশু অভিনেতা হিসেবে অভিনয় করেছেন তিনি। ফিটনেস সচেতন হৃত্বিককে নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। জামা-কাপড়ের জনপ্রিয় ব্র্যান্ড এইচ আর এক্স প্রতিষ্ঠানটিও তার। ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় এই অভিনেতা তার প্রতিটি সিনেমার জন্য নিয়ে থাকেন ৩০ থেকে ৪০ কোটি রুপি। তবে গুজব রয়েছে মহেঞ্জোদারো সিনেমাটির জন্য ৫০ কোটি রুপি নিয়েছিলেন হৃত্বিক। আর সবার আগে যার নাম, তিনি বলিউড তারকা আনুশকা শর্মার স্বামী বিরাট কোহলি। তিনি ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কও। তার ব্র্যান্ড ভ্যালু মার্কিন ডলারে প্রকাশ করলে হয় ২৩ কোটি ৭৭ লাখ, যা তালিকার দ্বিতীয়জনের চেয়ে ঢের বেশি। ব্র্যান্ড অ্যান্ডোর্সমেন্টের ক্ষেত্রে এই তারকারাই মাতিয়েছেন ২০২০ সাল। ২০২১ সালেও তাদের এগিয়ে থাকার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের গ্রহণযোগ্যতা সবচেয়ে বেশি। ‘আদর্শ ইমেজ’ তৈরির ক্ষেত্রে এগিয়ে আছেন এই তারকারা।

এক নজরে

১. বিরাট কোহলি

 ২. অক্ষয় কুমার

 ৩. রণবীর সিং

 ৪. শাহরুখ খান

 ৫. দীপিকা পাড়ুকোন

 ৬. আলিয়া ভাট

 ৭. আয়ুষ্মান খুরানা

 ৮. সালমান খান

 ৯. অমিতাভ বচ্চন

 ১০. হৃত্বিক রোশন


আপনার মন্তব্য