শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১০:১৮
আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১২:১৯
প্রিন্ট করুন printer

সেই আজ আমার গত ১০ দিনেও আসেনি...

ইফতেখায়রুল ইসলাম

সেই আজ আমার গত ১০ দিনেও আসেনি...
ইফতেখায়রুল ইসলাম

এক সময় ১০০ মিটার স্প্রিন্টার, লং জাম্পার ও হাই জাম্পার ছিলাম। দশম শ্রেণি পর্যন্ত এই ক্ষেত্রগুলোতে অনেক পুরস্কারও বগলদাবা করেছিলাম। পরে এই এ্যাথলেটিক্সের সুদিন না দেখে মনে হয়েছে সরে আসাই উত্তম! সরেও এসেছি। 

দৌড়ের সাথে আমার এক গভীর সম্পর্ক ছিল, এখন আর দৌড়ানোর সুযোগ হয় না এবং ইচ্ছেও হয় না। গত কয়েক বছরে হঠাৎ করেই দেখলাম অনেকগুলো রানিং গ্রুপ তৈরি হয়েছে। বিশেষ ওই গ্রুপের রানাররা নিয়মিত দৌড়ে বেড়ায়! খুব সকালে উঠেই শুরু হয় তাঁদের এই চমৎকার দৌড় যুদ্ধ। দারুণ একটি চর্চা, অনেক নেগেটিভিটির ভিড়ে শরীর নিয়ে মানুষের এই বিশেষ মনোযোগ আমাকে ভীষণ বিমোহিত করে। বিভিন্ন এলাকায় অঞ্চলভিত্তিক এরকম গ্রুপ তৈরি হয়ে গেলে আগামী প্রজন্মের জন্য এটি একটি সুস্থ ও সুন্দর দৃষ্টান্ত হয়ে থাকতে পারে। শারীরিক সুস্থতা যে মানসিক সুস্থতার বড় নিয়ামক সেটি তো আজকাল প্রায় ভুলতেই বসেছি আমরা!

নিজের বিস্মৃতির অতল তলে হারিয়ে যাওয়া দৌড়বিদকে জাগিয়ে তুলতে নতুন কেডস কিনলাম, মনে করলাম আজ থেকেই শুরু হবে দৌড়! সেই আজ আমার গত ১০ দিনেও আসেনি। সকালে মোবাইলে সময় দেখতে যেয়েই মনে হয়, আরেকটু ঘুমিয়ে নেই, উঠেই দেখি দাফতরিক সময় শুরু হওয়ার পথে। তাই দৌড় আর দেয়া হয় না! ছোটবেলায় কেউ জেদ ধরিয়ে দিলে কিছু অর্জন করার জন্য প্রচেষ্টা থাকতো, এখন কেউ জেদও ধরায় না তাই মন থেকে জোরও আসে না। 

হয়তো এক সময় শুরু করে দেব, যখন শুরু করবো তখন তা নিয়মে পরিণত করে ফেলবো। যথাযথ নিয়মের চর্চায় বন্দী হোক মানব জীবন।
শুভ রাত্রি

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

লেখক : এডিসি মিডিয়া অ্যান্ড পিআর


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর