শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ মার্চ, ২০১৯ ২৩:১৪

বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্মাননা পাঁচ বর্ণাঢ্য ব্যক্তিত্বকে

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্মাননা পাঁচ বর্ণাঢ্য ব্যক্তিত্বকে

বাংলাদেশ প্রতিদিন তার দশম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে নিজ নিজ ক্ষেত্রে উজ্জ্বল পাঁচজন গুণীকে বিশেষ সম্মাননা দেবে। এজন্য আগামী ২৩ মার্চ রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার (আইসিসিবি) গুলনকশা হলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

দেশের সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের কাছ থেকে যারা সম্মাননা পাচ্ছেন তারা হলেন বাংলা ভাষার শ্রেষ্ঠতম কবি শামসুর রাহমান (মরণোত্তর), কণ্ঠশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন, চিত্রাভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী ও ফরিদা আখতার ববিতা এবং বিশিষ্ট টিভি অনুষ্ঠান নির্মাতা হানিফ সংকেত। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই খ্যাতিমান ব্যক্তিদের সম্মাননা জানানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বাংলা ভাষার শ্রেষ্ঠতম কবি শামসুর রাহমানের প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘প্রথম গান, দ্বিতীয় মৃত্যুর আগে’ ১৯৬০ সালে প্রকাশিত হয়। বন্দীশিবির থেকে (১৯৭২) : এ কাব্যে স্বাধীনতা যুদ্ধকালীন আবেগ ও প্রত্যাশা প্রাধান্য পেয়েছে। এ গ্রন্থে ৩৮টি কবিতার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো : ‘তোমাকে পাওয়ার জন্য হে স্বাধীনতা’, ‘স্বাধীনতা তুমি’। এ কবির প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ ৬৬টি। এ ছাড়া রয়েছে ৪টি উপন্যাস, বেশকিছু প্রবন্ধগ্রন্থ, শিশু-কিশোর সাহিত্য, অনুবাদ কবিতা ও অনূদিত নাটক। দেশের সংগীতজগতে উজ্জ্বল নক্ষত্র সাবিনা ইয়াসমিন। প্রায় চার দশক ধরে দেশাত্মবোধক গান থেকে শুরু করে উচ্চাঙ্গ ধ্রুপদ, লোকসংগীত, আধুনিক বাংলা গানসহ চলচ্চিত্রে মিশ্র আঙ্গিকের সুরে শিল্পীর অবাধ যাতায়াত। ‘সব ক’টা জানালা খুলে দাও না’, ‘মাঝি নাও ছাড়িয়া দে’- বহু কালজয়ী গান গেয়ে তিনি জনচিত্তে দৃঢ় আসন পেয়েছেন। ছায়াছবিতে গেয়েছেন ১২ হাজারের মতো গান। ১০ বার পেয়েছেন জাতীয় পুরস্কার। দেশের তারকা অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী। বিংশ শতাব্দীর ষাট ও সত্তরের দশকের জনপ্রিয় এই শিল্পীর চলচ্চিত্র অঙ্গনে পদার্পণ ১৯৬৪ সালে সুভাষ দত্তের ‘সুতরাং’ ছবির নায়িকা চরিত্ররূপে। এরপর হীরামন, ময়নামতি, চোরাবালি, পারুলের সংসার, বিনিময়, আগন্তুক, জহির রায়হানের ‘বাহানা’ এবং ভারতের বিখ্যাত নির্মাতা ঋত্বিক ঘটকের ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ ছবিতে তার হৃদয়ছোঁয়া অভিনয় আজও মানুষের স্মৃতিতে অটুট। ফরিদা আখতার ববিতা গত শতকের সত্তর ও আশির দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী। সত্যজিৎ রায়ের অশনিসংকেত ছবিতে তার অভিনয় তাকে এনে দেয় আন্তর্জাতিক পর্যায়ের প্রশংসা। ববিতা ২৫০টির বেশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তিনি টানা তিনবার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে পুরস্কৃত। এ ছাড়া ১৯৮৬ সালে আরেকবার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী, ’৯৭ সালে শ্রেষ্ঠ প্রযোজক হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন। চলচ্চিত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ২০১৮ সালে তাকে রাষ্ট্রীয়ভাবে দেওয়া হয় জাতীয় আজীবন সম্মাননা। হানিফ সংকেত দেশের সংস্কৃতি অঙ্গনের জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। প্রায় দুই যুগ ধরে তিনি সফল টিভি অনুষ্ঠান নির্মাতা ও উপস্থাপক। তার ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’ বিনোদনের পাশাপাশি সচেতন করে চলেছে জনগণকে। তিনি একাধারে উপস্থাপক, পরিচালক, লেখক ও প্রযোজক। হাস্যরসের মধ্য দিয়ে বিভিন্ন সামাজিক অসংগতি তুলে ধরা তার বৈশিষ্ট্য।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর