শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৮ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ মে, ২০১৯ ২২:৪৭

জোট ছেড়েছি অবহেলা অবজ্ঞার কারণে : পার্থ

জোট ছেড়েছি অবহেলা অবজ্ঞার কারণে : পার্থ

বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি) চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ বলেছেন, ‘মন্ত্রী এমপি হওয়ার কোনো লোভ আমার নেই। এজন্য বিএনপি জোটও ছাড়িনি। জোট ছেড়েছি অবহেলা আর অবজ্ঞার কারণে। কেবল সংহতি ও সহমত পোষণের জন্যই ২০-দলীয় জোটের সভা ডাকা হতো। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে ফোনালাপে এসব কথা বলেন ব্যারিস্টার পার্থ।

পার্থ বলেন, ‘৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন হওয়ার পর ২০-দলীয় জোট তা প্রত্যাখ্যান করে। কিন্তু পরে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দুজন ও বিএনপির চারজন সংসদ সদস্য শপথ নেওয়ায় দেশবাসীর মতো আমরা হতবাক হই। শপথ নেওয়ার এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে বিএনপি ছাড়া ২০ দলের অন্য কোনো দলের সম্পৃক্ততা নেই।’ তিনি বলেন, ‘সামনে সাড়ে চার বছর সময় আছে। এই সময়ের মধ্যে নিজের দলকে গোছাতে চাই। অনেকেই এখন রাজনীতিবিমুখ। বিশেষ করে তরুণদের বড় একটি অংশই রাজনীতি করতে চান না। তাদের নিয়েও কাজ করতে চাই। রাজনীতিতে ইতিবাচক ধারা সৃষ্টি করে আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নেব।’

বিজেপি চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘অনেকেই আমাকে বলছেন, আমি নতুন কোনো দল বা জোটে যোগ দেব কিনা? আমার সাফ কথা, না। ২০-দলীয় জোটের শরিক দল আমরা। বিজেপি ১৯৯৯ সাল থেকে চারদলীয় জোট এবং পরে ২০-দলীয় জোটে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে। কিন্তু জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের পর ২০ দলের কার্যক্রম ক্রমেই স্থবির হয়ে পড়ে। কোনো কিছুই ২০ দলকে জানানো হতো না। বিএনপির চার এমপির শপথ গ্রহণের পরও আনুষ্ঠানিক বা অনানুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি। এ অবস্থায় আমাদের যদি ন্যূনতম রাজনৈতিক শিষ্টাচারবোধ থাকে, তাহলে ওই জোটে আমাদের থাকা ঠিক নয়। তাই দলের নেতা-কর্মীদের নিয়েই আমরা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ তিনি বলেন, ‘বিএনপির এখন কোনো অধিকার নেই বিরোধী দল বলার। কারণ তারা তো এ সরকার ও সংসদকে মেনেই নিয়েছে। কোন ইস্যুতে তারা সরকারের বিরোধিতা করবে? গণতন্ত্র, ভোটাধিকার বা আইনের শাসন নিয়ে কথা বলার কোনো অধিকার তাদের নেই। তাই আমরাই এখন রাজপথের বিরোধী দল। সংসদকে বৈধতা দিয়ে বিএনপি বিরোধী দলে থাকার নৈতিক অধিকার হারিয়েছে।’


আপনার মন্তব্য