Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৯ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ মে, ২০১৯ ২২:৫৩

শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ মিশন

টাইগাররা এখন লন্ডনে

ক্রীড়া প্রতিবেদক

টাইগাররা এখন লন্ডনে

হতাশায় নুইয়ে পড়া আর কান্নায় ভেঙে পড়া ২০০৯ থেকে ২০১৮ সালের ছয়-ছয়টি ফাইনালে বাংলাদেশ ক্রিকেটের পরিচিত ছবি। ফাইনাল খেললেও শিরোপা উৎসবে মেতে ওঠা হয়নি টাইগারদের। সাজতে পারেনি রংধনুর রঙে। আনন্দের মেঘ হয়ে ভেসে বেড়ানো হয়নি নীল আকাশে। ডাবলিনে সপ্তম ফাইনালে হতাশা, বেদনা আর কান্নাকে পাথরচাপা দিয়ে শিরোপা উৎসবে মেতেছেন মাশরাফিরা। পূরণ করেছেন শিরোপার স্বপ্ন। বহু আরাধনার শিরোপা জিতে আত্মবিশ্বাসী টাইগাররা এখন ইংল্যান্ডে। স্টিভ রোডসের নেতৃত্বে ক্রিকেটাররা যখন ডাবলিন ছেড়ে পা রেখেছেন লন্ডনে, তখন অন্য বিমানে চড়ে ডাবলিন ছেড়েছেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, তামিম ইকবাল, তাসকিন আহমেদ, ফরহাদ রেজা, মোহাম্মদ নাইম ও ইয়াসির আলী। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে তামিম দুবাইয়ে এবং টাইগার অধিনায়কসহ বাকিরা ফিরেছেন ঢাকায়। অবশ্য ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ দলের সঙ্গে মাশরাফি ও তামিম যোগ দেবেন ২৩ মে।  বিশ্বকাপ শুরু ৩০ মে। বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন শুরু ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ দিয়ে। ষষ্ঠবারের মতো ক্রিকেট মহাযজ্ঞে অংশ নিলেও মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাহমুদুল্লাহদের স্বপ্ন এবার আকাশ ছুঁই ছুঁই। মাশরাফির নেতৃত্বে টাইগাররা এবার স্বপ্ন দেখছেন প্রথমবারের বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলার। বিশ্বকাপ মঞ্চে নামার আগে টাইগাররা আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিয়েছে তিন জাতির টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়ে। চ্যাম্পিয়ন হতে মাশরাফি বাহিনী তিনবার হারিয়েছে দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও একবার আয়ারল্যান্ডকে।  বাংলাদেশ যখন আয়ারল্যান্ডে পা রাখে, তখনই শিরোপা স্বপ্নকে সঙ্গী করে নিয়ে আসে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দাপুটে ক্রিকেট খেলে চ্যাম্পিয়ন হয়। টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটার সেঞ্চুরি করেননি ঠিকই, কিন্তু রানের ফল্গুধারা ছুটিয়েছেন সবাই। টানা তিন ম্যাচে হাফসেঞ্চুরি করেছেন সৌম্য সরকার। ৩ ম্যাচে বাঁহাতি ড্যাসিং ওপেনারের রান ১৭৬। দুটি হাফসেঞ্চুরি করেছেন তামিম ও সাকিব। ফাইনালে ২৪ ওভারে ২১০ রানের টার্গেট বাংলাদেশ টপকে গেছে সৌম্যর ৬৬ ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের টর্নেডো গতির ৫২ রানে। ওভারপ্রতি সাড়ে ৮ রানের টার্গেট টপকাতে মোসাদ্দেক ৫২ রানের ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলেন মাত্র ২৭ বলে ৫ ছক্কা ও ২ চারে। শুধু ব্যাটসম্যানরা নন, গোটা টুর্নামেন্টে দারুণ বোলিং করেছেন মাশরাফি, মুস্তাফিজ। সব মিলিয়ে বিশ্বকাপের আগে দারুণ ছন্দে ক্রিকেটাররা। স্বপ্ন এখন দেখতেই পারেন ক্রিকেটাররা।


আপনার মন্তব্য