Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ নভেম্বর, ২০১৯ ২১:৩৪

ট্রেন্ডি থি-পিস

ট্রেন্ডি থি-পিস
♦ মডেল : সুষমা সরকার ♦ পোশাক : রঙ বাংলাদেশ ♦ মেকওভার : ওমেন্স ওয়ার্ল্ড ♦ ছবি : ফ্রাইডে

ফ্যাশন আবহমান। শুধু শাড়ি বা ওয়েস্টার্ন পোশাকেও আবদ্ধ নয় ফ্যাশন ট্রেন্ড। থ্রি-পিস পোশাকেও কিশোরী থেকে মধ্যবয়সী ফ্যাশনিয়েস্তারা মাতোয়ারা। তাই নিয়ে বিস্তারিত লিখেছেন-  ফেরদৌস আরা

ট্রেন্ড ঘুরেফিরে আসে আবার একই কক্ষপথে। ছিমছাম আর স্বাচ্ছন্দ্য খুঁজতে গিয়ে তরুণীরা বরাবরই বেছে নেয় থ্রি-পিস। ঐতিহ্য এবং ট্রেন্ড দুই-ই মিলে আসে থ্রি-পিস ফ্যাশনে র্পর্ণতা।

 

ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে এখন হরেক রকম পোশাকের আনাগোনা। কিন্তু বাঙালি রমণীদের পছন্দের শীর্ষে থাকে শাড়ি। এরপর থাকে থ্রি- পিসের কদর। ট্রেন্ড যতই পাশ্চাত্যের ফ্যাশনে হাতছানি দিক না কেন, ফ্যাশন ট্রেন্ড ঘুরে ফিরে আসে বার বার একই পোশাকে। তবে, খানিকটা বৈচিত্র্য (বিয়োজন-সংযোজন) আর পরিবর্তন থাকবেই। সেই পরিবর্তন নিয়ে বাঙালির রমণীদের অন্যতম আউটফিট থ্রি-পিস বা সালোয়ার কামিজ বরাবরই সেরা। আর পোশাকটি তরুণীদের পছন্দের শীর্ষে।

 

ফ্যাশনিয়েস্তারা বরাবরই ছিমছাম পোশাকের দিকে নজর দেন। আর তাই রমণীরাও ফ্যাশনে বেছে নেয় টপস, ফতুয়া, কুর্তি এবং কাতুয়া। ডিজাইন যেমনই হোক সবারই চাই আরামপ্রিয় পোশাক। তাই বলে ঐতিহ্যের বাইরের ডিজাইন জমাবে ফ্যাশনপাড়া! এমনটাও ভাবা বোকামি। কেননা, তরুণীদের মনে হাজারো পোশাকের ভিড়ে শাড়ির পরই থাকে থ্রি-পিসের কদর। যা সব ঋতুতেই পরিধান যোগ্য। রং মিলিয়ে ডিজাইন করা ওড়না-সালোয়ার-কামিজের এই তিন পার্ট মিলে একটি পোশাকের ধারণা থেকে কিছুদিন বিরতি নিয়েছিল অনেকেই। কিন্তু ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে আবারও দাপট শুরু হয়েছে থ্রি-পিসের।

 

কয়েকটি ধারার সম্মিলনে তৈরি থ্রি-পিস বা সালোয়ার-কামিজ দেখে মনে হতে পারে ঘুরেফিরে একই জিনিস। তবে পার্থক্য শুধু পরিবেশন আর ফিউশনে। মাঝে মাঝে এখানে রঙের প্রাধান্যও চোখে পড়ে। কিছু সময় খুব রগরগে রঙের প্রতি মেয়েদের ঝোঁক থাকে, কখনো মিইয়ে পড়া রঙে তারা খুব খুশি। কখনো তাতে লেস-পুঁতির ব্যবহার বাড়ে, কখনো কয়েকটি রঙের কাপড়ের সংযোজন থাকে। এসব পোশাকে আবার এমনও দেখা গেছে, সুতির প্রাধান্য বেড়ে যেতে বা সিনথেটিকের প্রাধান্য বাড়তে। তবে যে রূপেই হাজির হোক সালোয়ার-কামিজই কিন্তু এখন শীর্ষে।

 

যে কোনো উৎসব-পার্বণে যে কোনো বয়সী মেয়েদের পছন্দে থাকে সালোয়ার কামিজ। আর ফ্যাশনেবল পোশাকটির কাটিংয়ে বরাবরই থাকে ভিন্নতা। প্যাটার্নে থাকে নতুনত্ব। উপস্থাপনেও থাকে পরিচ্ছন্নতা। বিগত কয়েক বছর ধরেই এই পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কারণ হিসেবে বলা যেতে পারে, চল যেটাই থাকুক না কেন, ফ্যাশনে ভিন্নতা ও নতুনত্ব চায় সবাই। তাই তো কামিজের সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন নানা ডিজাইনের কটি। রংচঙ্গা এই কটিগুলো মানিয়েও যাচ্ছে বেশ।

 

ঋতু যেমনই হোক- সাধারণ সুতি কাপড় পরতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন আজকালের তরুণীরা। সে কারণে বর্তমানে সালোয়ার কামিজেও প্রাধান্য পেয়েছে সুতি কাপড়। তবে লিলেন কাপড়ের চলনও কম নয়। ঠান্ডা বা গরম; সব সময়ই আরামের ভূষণ একে বলাই যায়। তবে সালোয়ার-কামিজে পুরনো ডিজাইন আর প্যাটার্ন যোগ করা হয়েছে। আর তাই আজকাল আধুনিকতায় রূপ নিয়েছে। স্টাইলিশ কামিজ সঙ্গে সালোয়ার। ব্যাস, ফ্যাশনে এর চেয়ে বেশি কিছুর প্রয়োজন নেই।

 

আর বর্তমানের থ্রি-পিস বা সালোয়ার কামিজের ফেব্রিক হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে সুতি, সিল্ক, এন্ডি কটন, এন্ডি সিল্ক, হাফ সিল্ক। পাল্লাতে পিছিয়ে নেই খাদির ফেব্রিকও। ওড়নার সাইজ কামিজের সঙ্গে মিলিয়ে তৈরি করা হয়েছে। সব মিলিয়ে গরমেও মেয়েরা পছন্দ করছে লং কামিজ। গেল বছরের মতো এ বছরও থ্রি কোয়ার্টার হাতার ট্রেন্ড। ডিজাইনের পাশাপাশি ফ্যাশন হাউসগুলো পোশাকে ব্যবহার করেছে উজ্জ্বল রং ও উজ্জ্বল রঙের সুতা। এ পোশাকের সঙ্গে চুড়িদার পায়জামা ও সালোয়ার দুটোই সমানভাবে চলছে। এসব বিষয় মাথায় রেখে দেশীয় বুটিক হাউসগুলো থেকে শুরু করে প্রতিটি শপিংমলের মূল আকর্ষণ এখন সালোয়ার-কামিজ। সময়ের বিবর্তনে এই পোশাকটিই ভিন্ন ভিন্ন ডিজাইনে আবির্ভাব হলেও পোশাকটির আদি নামের তেমন কোনো পরিবর্তন হয়নি। সালোয়ার-কামিজ নামেই এর খ্যাতি বিশ্বজোড়া। কামিজগুলোতে কাটিং, কলার, লে-আউট, ছাপা, ব্লক, বুটিক, বাটিক, লেস ও চুমকির ব্যবহারসহ প্রায় সবকিছুতে ইদানীং ভিন্নতা দেখা যাচ্ছে। আজকের তরুণীরা ট্র্যাডিশনাল পোশাকের পাশাপাশি এই নতুন ধারার ফ্যাশনের সঙ্গে সহজেই নিজেকে মানিয়ে নিচ্ছেন। সাধ আর সাধ্যের সমন্বয়েই তৈরি হচ্ছে এই পোশাকগুলো।

 

সালোয়ার-কামিজ কেনার ক্ষেত্রে ক্রেতাদের প্রধান আকর্ষণ থাকে দেশের বুটিক হাউসগুলো। হাউসগুলোও সময়, উৎসব ও ঋতুকে প্রাধান্য দিয়ে তৈরি করে বৈচিত্র্যময় সালোয়ার কামিজ। এর বাইরেও ভারতীয় কাপড়ে জরি, সুতা, পুঁতি, চুমকি, কুন্দন ইত্যাদি দিয়ে নকশা করা সালোয়ার-কামিজের চাহিদাও থাকে বছর জুড়ে। দামও ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে। রাজধানীর ছোট-বড় সব শপিংমলেই রয়েছে নানা ডিজাইন ও রঙের গরমে উপযোগী সালোয়ার-কামিজের সমাহার। গাউছিয়া, নিউমার্কেট, চাঁদনী চক, ইসলামপুর, বনানী বাজার ও মিরপুরসহ বিভিন্ন মার্কেটে মিলবে আপনার পছন্দের থ্রি-পিস।


আপনার মন্তব্য