শিরোনাম
প্রকাশ : ৩১ অক্টোবর, ২০২০ ১৩:২১
আপডেট : ৩১ অক্টোবর, ২০২০ ১৩:২৩

কাশ্মীরে আপেলবাগানে ‘হেইল নেট’ পদ্ধতিতে নিবিড় ফলন সুরক্ষা

অনলাইন ডেস্ক

কাশ্মীরে আপেলবাগানে ‘হেইল নেট’ পদ্ধতিতে নিবিড় ফলন সুরক্ষা

জন্মু ও কাশ্মীরের শের-ই-কাশ্মীর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা বাগানে আপেলের নিবিড় ফলনের সুরক্ষায় ‘হেইল নেট’ নামের একটি পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ড. খালিদ মুশতাক বলেন, এ পদ্ধতিতে বৈরী আবহাওয়া আর পাখির উপদ্রব থেকে আপেলকে নিরাপদ রাখা যাবে। মূলত শিলাবৃষ্টিজনিত ক্ষতি থেকে আপেলবাগান রক্ষার উদ্দেশ্যেই পদ্ধতিটি প্রয়োগ করতে হয়। তবে ব্যবস্থাটা এমন যে, ক্ষতিকর  সূর্যতাপ এড়ানোর জন্যও এ পদ্ধতির ব্যবহার অপরিহার্য।

আপেল চাষি ইনাম মীর বলেন, হেইল নেট অর্থাৎ শিলাবৃষ্টিরোধক জাল দুই রকমের- কালো ও সাদা। কালো জাল ব্যবহার করতে হয় বাগানের যেখানে খুব বেশি সূর্যালোক সেখানে। সাদা জাল ব্যবহার হয় যেখানে সূর্যালোক কম সেখানে। তবে পদ্ধতি প্রয়োগের রীতি বোঝার জন্য চাষিকে নিতে হবে প্রশিক্ষণ। ড. মুশতাক মনে করেন, আপেলের উচ্চফলনকামী বাগান মালিকদের কাছে হেইল নেট পদ্ধতি দ্রুত জনপ্রিয় হবে। উপত্যকার প্রশাসন কর্তৃপক্ষও এ বিষয়ে আগ্রহী। আপেলভিত্তিক শিল্পকে স্থায়ী খাত হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে।

কাশ্মীরের আপেলভিত্তিক শিল্পে এখন ৬ হাজার কোটি রুপি লেনদেন হয়। সরকার চায় সামনের পাঁচ বছরে এটা ২০ থেকে ২৫ হাজার কোটি রুপিতে উন্নীত হোক।

 


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর