২১ এপ্রিল, ২০২২ ১০:১৯

পাকিস্তানের নতুন মন্ত্রিসভায় পাঁচ নারী, দেশজুড়ে শোরগোল

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের নতুন মন্ত্রিসভায় পাঁচ নারী, দেশজুড়ে শোরগোল

বা থেকে শেরি রহমান, সাজিয়া মারি, হিনা রাব্বানি খার, আয়েশা গাউস পাশা ও মরিয়ম আওরঙ্গজেব

নানা নাটকীয়তার পর আস্থা ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত হন পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফ (পিটিআই) সরকারের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এরপর দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন পাকিস্তান মুসলিম লিগের (পিএমএল-এন) প্রেসিডেন্ট শাহবাজ শরিফ।

শপথের পর এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে নিজের মন্ত্রিসভা সাজিয়েছেন পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। বিস্তর টালবাহানার পরে নতুন সেই মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথও নিয়েছেন। আর সেখানে যথেষ্ট চমক রেখেছেন পিএমএল-এন প্রধান শাহবাজ শরিফ। তার মন্ত্রিসভা এখন আলো করছেন পাঁচ নারী সদস্য, যা নিয়ে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম শোরগোল পড়ে গেছে।

সদ্য ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মন্ত্রিসভায় নারীরা তেমন গুরুত্ব পায়নি। কিন্তু শাহবাজ ব্যতিক্রমী। নিজের মন্ত্রিসভায় পাঁচ নারীকে গুরুত্বপূর্ণ পদে রেখেছেন তিনি। যার মধ্যে রয়েছেন শেরি রহমান, হিনা রাব্বানি খার, সাজিয়া মারি, মরিয়ম আওরঙ্গজেব এবং আয়েশা গাউস পাশা।

পাকিস্তান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান তথা বেনজির ভুট্টোর পুত্র বিলাবল জারদারি ভুট্টো শাহবাজ শরিফের এই মন্ত্রিসভায় আপাতত কোনও পদ পাননি। তবে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমগুলোতে জল্পনা চলছিল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের গুরুত্বপূর্ণ পদ পেতে পারেন বিলাবল। শাহবাজ শরিফ আপাতত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়টি নিজের কাছেই রেখেছেন। আর সেই মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছেন দেশটির সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পিপিপি নেত্রী হিনা রাব্বানি খারকে।

কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞেরা মনে করছেন, ভবিষ্যতে হিনার দলের চেয়ারম্যান অর্থাৎ বিলাওয়ালকেই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আসনে বসাতে পারেন শাহবাজ শরিফ। তবে তার আগে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কের গভীরতা নিজে মেপে দেখতে চাইছেন তিনি। তাই আপাতত প্রতিমন্ত্রী হিসেবে রেখেছেন এই মন্ত্রণালয়ের অভিজ্ঞতা রয়েছে এমন এক নেত্রীকে।

আমেরিকায় পাকিস্তানের প্রাক্তন দূত শেরি রহমানকেও পরিবেশের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদ দিয়ে প্রশংসা কুড়িয়েছেন শাহবাজ শরিফ। ইমরান খানের আমলে পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন তার দলের জারতাজ গুল। কিন্তু তিনি ততটা গুরুত্ব দিয়ে সেই মন্ত্রণালয়ের দেখভাল করতে পারেননি বলে অভিযোগ। বিভিন্ন সময় পরিবেশ সংক্রান্ত নানা বিতর্কিত কথা বলে সংবাদের শিরোনামে থেকেছেন গুল। অথচ পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলোর অভিযোগ, কোনও ক্ষেত্রেই পরিবেশকে গুরুত্ব দিতে চাননি তিনি। উল্টো দিকে, আমেরিকায় পাকিস্তান দূত হিসেবে শেরির কর্মদক্ষতা প্রশংসা কুড়িয়েছিল তার বিরোধী দলগুলোর কাছেও। এবারেও তাকে জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী করে শাহবাজ শরিফ বুদ্ধিমত্তারই পরিচয় দিয়েছেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞেরা।

পিএমএল-এন নেত্রী মরিয়ম আওরঙ্গজেবকে তথ্যমন্ত্রীর পদ দিয়েছেন নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। বরাবরের স্পষ্টবাদী মরিয়মও নিজের কাজ ভালই সামলাতে পারবেন বলে মনে করা হচ্ছে। মন্ত্রিসভায় আরও দুই নারী মুখ হলেন পিপিপি’র নেত্রী সাজিয়া মারি এবং পিএমএল-এনের আয়েশা গাউস পাশা। তারা দু’জনই প্রথমবারের মতো পাকিস্তানের মন্ত্রী হলেন। সাজিয়াকে বেনজির ইনকাম সাপোর্ট প্রোগ্রাম (বিআইএসপি)-এর মন্ত্রণালয় এবং আয়েশাকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সূত্র: ডন নিউজ

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর