শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২২

পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচন

ষষ্ঠ দফায় ‘যুদ্ধ’ আজ

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

Google News

করোনা মহামারীর মধ্যেই আজ ষষ্ঠ দফায় পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভার নির্বাচন হচ্ছে। ৪৩টি আসনে ভোট নেওয়া হবে। উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গ মিলিয়ে রয়েছে এই আসনগুলো। এর মধ্যে উত্তর দিনাজপুর জেলার ৯টি বিধানসভা কেন্দ্রে, উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলায় ১৭টি, নদীয়ায় ৯টি এবং পূর্ব বর্ধমান জেলায় ৮টি আসনে ভোট নেওয়া হবে। ভৌগোলিকগতভাবে এবারের আসনগুলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। উত্তর দিনাজপুরের চোপরা, ইসলামপুর, চাকুলিয়া, গোয়ালপোখরের মতো একাধিক আসন আছে যার একদিকে আছে বাংলাদেশ অন্য সীমান্তে রয়েছে বিহার রাজ্য। তেমনি উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার কিছু আসন আছে-যার একদিকে বাংলাদেশ সীমান্ত। আবার কিছু আসন আছে মতুয়া সম্প্রদায় অধ্যুষিত, অর্থাৎ যেখানে মতুয়ারাই নীতিনির্ধারক হয়ে উঠতে পারেন। রাজ্যজুড়ে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বৃদ্ধির কথা মাথায় রেখেই ৪৮ ঘণ্টার বদলে ৭২ ঘণ্টা আগে গত সোমবার নির্বাচনী প্রচারণা শেষ হয়। যদিও এই মহামারীর মধ্যেও প্রচারণায় অংশ নিতে দিল্লি থেকে রাজ্যে উড়ে আসতে দেখা গেছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, বস্ত্রমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা, মিঠুন চক্রবর্তীর মতো নেতাদের। তেমনি তৃণমূলের স্টার ক্যাম্পেইনারদের মধ্যে ছিলেন মমতা ব্যানার্জি, অভিষেক ব্যানার্জিসহ টালিগঞ্জের একঝাঁক শিল্পী-কুশীলব। আজকের প্রার্থীদের মধ্যে নদীয়ার কৃষ্ণনগর উত্তর আসনে লড়ছেন তৃণমূলের প্রার্থী অভিনেত্রী কৌশানী মুখোপাধ্যায়ের প্রতিপক্ষ বিজেপির মুকুল রায়। নির্বাচনের আগে তৃণমূলে যোগ দিয়ে টিকিট পেয়েছেন কৌশানী। একদা তৃণমূলের দুঁদে সংগঠক, বর্তমানে বিজেপির সর্বভারতীয় সহসভাপতি মুকুল রায়ের সঙ্গে লড়াই তাঁর। পোড়খাওয়া রাজনীতিবিদ হলেও ভোটের ময়দানে বিশেষ ‘পরীক্ষিত’ নন মুকুল। ২০০১ সালে উত্তর ২৪ পরগনার জগদ্দল কেন্দ্রে ভোটে দাঁড়িয়ে হারতে হয়েছিল তাঁকে। দীর্ঘ ২০ বছর পরে ফের ভোটে লড়ছেন তিনি। রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভার আসনে মোট আট দফায় নির্বাচন হচ্ছে। সপ্তম দফায় আগামী ২৬ এপ্রিল ৩৬টি আসনে ভোট গ্রহণ। ভোট গণনা আগামী ২ মে।