শিরোনাম
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ০০:০০ টা

ব্রিটেনের নাগরিক নন শামীমা জানালেন সর্বোচ্চ আদালত

ব্রিটেনের নাগরিক নন শামীমা জানালেন সর্বোচ্চ আদালত

শামীমা বেগম

আইএস বধূ হিসেবে বিশ্বজুড়ে পরিচিত শামীমা বেগমের আপিল খারিজ করে দিয়েছেন ব্রিটিশ আদালত। ইসলামিক স্টেট জিহাদি গোষ্ঠীর সঙ্গে তার সম্পৃক্ততার কারণে ২০১৯ সালে শামীমার নাগরিকত্ব বাতিল করে ব্রিটিশ সরকার। এর পর থেকেই তিনি আইনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। নাগরিকত্ব ফিরে পেতে সর্বশেষ গত বছরের অক্টোবরে লন্ডনের আপিল আদালতে মামলা করেন ২৪ বছরের শামীমা। তবে গতকাল ওই আপিল আদালত বলেছেন, শামীমার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব আইনসিদ্ধভাবেই বাতিল করা হয়েছে।

তথাকথিত ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গি গোষ্ঠীতে যোগ দিতে ২০১৫ সালে যুক্তরাজ্য থেকে সিরিয়ায় পালিয়ে যাওয়া শামীমা বেগম ব্রিটেনে ফিরতে পারবেন না। গতকালের রায়ের অর্থ হচ্ছে, তিনি ব্রিটেনের নাগরিক নন। বাংলাদেশি বংশো™ভূত শামীমা বেগমের জন্ম ও বেড়ে ওঠা যুক্তরাজ্যে। কিন্তু আট বছর আগে ব্রিটেন থেকে পালিয়ে সিরিয়ায় গিয়ে জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের সঙ্গে যোগ দেওয়ার কারণে তার নাগরিকত্ব বাতিল করেছিল ব্রিটিশ সরকার।

প্রধান বিচারপতি বলেছেন, শামীমা বেগমের মামলায় বিষয়ে সিদ্ধাš- দেওয়া কঠিন হলেও, তিনি নিজেই তার দুর্ভাগ্যের ভিত্তি রচনা করেছেন। সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে আল-রোজ নামক এক বন্দিশিবিরে বসবাস করছেন শামীমা। শামীমা বেগম তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে আইএসের নিয়ম-কানুন ও শাসনের অধীনে ছিলেন। শামীমা বেগম তুরস্ক হয়ে সিরিয়ার রাক্কায় পৌঁছানোর পর একজন ডাচ-বংশোদ্ভূত আইএস যোদ্ধার সঙ্গে তার বিয়ে হয় এবং সেখানে তার তিনটি সন্তান হয়- যাদের সবাই মারা গেছে।

 

 

সর্বশেষ খবর