Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ মার্চ, ২০১৯ ২০:২২
আপডেট : ২৩ মার্চ, ২০১৯ ২০:২৬

মাজার-মন্দির ঘুরে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলেন নুসরাত

দীপক দেবনাথ, কলকাতা:

মাজার-মন্দির ঘুরে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলেন নুসরাত

রুপালী পর্দা ছেড়ে এবার সরাসরি মানুষের দরবারে হাজির হচ্ছেন দুই বাংলায় জনপ্রিয়তা পাওয়া অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। যাদের জন্য অভিনেত্রী হয়েছেন এবার তাদের জন্য কাজ করতে মাঠে নামলেন তিনি। ভারতে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার ‘বসিরহাট’ লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী হওয়ার পর আনুষ্ঠানিকভাবে এই প্রথম প্রচারণায় নামলেন নুসরাত।

তবে এর আগে আজ সকালে কলকাতার বাড়ি থেকে বেরিয়ে প্রথমে লেক কালিবাড়িতে পূজা দেন নুসরাত। সেখান থেকে চলে যান খিদিরপুরে। সেখানে একটি মাজারে চাদর চড়ান তিনি। এরপর বাসন্ত জাতীয় সড়ক ধরে এসে পৌঁছন বসিরহাট লোকসভার অন্তর্গত সন্দেশখালিতে।

সন্দেশখালির সরবেরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে কর্মী সভায় যোগ দেন তিনি। সেখানে তাকে সন্দেশখালি ব্লক তৃণমূলের পক্ষ থেকে ধামসা-মাদল বাজিয়ে স্বাগত জানানো হয়। ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, ফায়ার সার্ভিস মন্ত্রী সুজিত বসু, সন্দেশখালির বিধায়ক সুকুমার মাহাতো, পানিহাটির বিধায়ক নির্মল ঘোষসহ দলের নেতারা। নুসরাতকে দেখতে সভাস্থলে অসংখ্য মানুষের ঢল নামে।

জনসভা থেকে নুসরাত বলেন, 'আমার নাম নুসরাত জাহান। এতদিন আমায় সিনের পর্দায় দেখেছেন। এবার সিনেমার পর্দার চৌকাঠ পেরিয়ে আমি আপনাদের মাঝখানে, আপনাদের সহকর্মী হিসাবে নতুন করে ফিরে পেয়েছি। আপনারা খুশি তো? আমি কিন্তু খুব খুশি হয়েছি যে দিদি (মমতা ব্যনার্জি) আমাকে এখানে প্রার্থী করেছেন। অনেক দিন ধরেই বলেছি যে দিদি এরাজ্যের মানুষের জন্য, তাদের জীবনে পরিবর্তন আনার জন্য, বাংলার উন্নয়নের জন্য যে সংগ্রাম চালিয়েছেন-আমি সেই সংগ্রামের নতুন সৈনিক। দিদি সেই দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন কিন্তু আমি সেই দায়িত্ব একা পালন করতে পারবো না। তাই কথা দিন আপনারা সবসময় আমার সাথে থাকবেন। আপনারা দোয়া করুন, পাশে থাকুন-জয় আমাদের নিশ্চিত। কারণ ভাল জিনিসের সবসময় জয় হয় এবং যারা মানুষের ভালোর জন্য কাজ করেন তাদের পাশে ওপরওয়ালা আছেন।'

এসময় উপস্থিত দর্শকদের উদ্দেশে নুসরাতের অঙ্গিকার, ‘আমার মোবাইল ফোন নম্বর দলের খাতায় নিবন্ধিত আছে। এখানে মঞ্চে উপস্থিত সকলের কাছেও সেই নম্বর আছে। একটা ফোন করবেন..আপনাদের যখনই কোন অসুবিধা বা প্রয়োজন হবে, আমি চলে আসবো। আমি আপনাদেরকে এই আশ্বাস দিতে পারি।’


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য