শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ জুন, ২০২১ ০৮:৪৪
আপডেট : ১৭ জুন, ২০২১ ১২:০২
প্রিন্ট করুন printer

স্থাবর-অস্থাবর সব সম্পত্তি বৈশাখীর নামে লিখে দিয়েছেন শোভন!

কলকাতা প্রতিনিধি

স্থাবর-অস্থাবর সব সম্পত্তি বৈশাখীর নামে লিখে দিয়েছেন শোভন!
বৈশাখী ও শোভন
Google News

নিজের স্থাবর-অস্থাবর যাবতীয় সম্পত্তি বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে লিখে দিলেন পশ্চিমবঙ্গের সাবেক মন্ত্রী ও কলকাতার সাবেক মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফেসবুক লাইভ করেন শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে শোভন বলেন, ‘আমি পাওয়ার অব অ্যাটর্নি করে ফেলেছি। আমার স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি সব বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিয়েছি। আমি উইল করে ফেলেছি।’ তার অভিমত সম্পর্ককে মর্যাদা দিতেই বৈশাখীকে তার সব সম্পত্তি লিখে দিয়েছেন। তাই এখন থেকে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় সব সম্পত্তির অধিকারী।

ফেসবুক লাইভে শোভন আরও জানান, ‘বৈশাখীকে তিনি অসময়ে পাশে পেয়েছেন।’ শোভন-বৈশাখীর এই ফেসবুক লাইভের পরই মঙ্গলবার রাতে নিজের ফেসবুক প্রোফাইলের নাম বদলে ফেলেন বৈশাখী। নাম রাখেন ‘বৈশাখী-শোভন ব্যানার্জি’। শোভনের সঙ্গে ছবিও আপলোড করে ক্যাপশন দেন ‘দ্য জার্নি ফ্রম মি টু ওই ইজ ওনলি এ জার্নি ইন দ্য ভার্চুয়াল ওয়ার্র্ল্ড...’ (আমি থেকে আমরার

যাত্রা শুধু ভার্চুয়াল বিশ্বে)।
উল্লেখ্য, স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে মনোমালিন্য চরমে ওঠায় স্ত্রী ও দুই সন্তানকে ছেড়ে গত কয়েক বছর ধরেই বান্ধবী বৈশাখীর সঙ্গে থাকছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়।

২০১৭ সালে কলকাতার বেহালার বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে আসেন শোভন।

থাকছিলেন গোলপার্কের একটি ফ্ল্যাটে। এরপর থেকে রাজ্য রাজনীতির অত্যন্ত চর্চিত জুটি হয়ে দাঁড়ায় শোভন-বৈশাখী। ২০১৮ সালে একে একে মন্ত্রিত্ব, মেয়র পদ ছেড়ে তৃণমূল থেকে নিষ্ক্রিয় হয়ে যান শোভন। কেবল বিধায়ক ও কাউন্সিলর পদ নিজের কাছে রেখে দেন। এরপর ২০১৯ সালের আগস্টে বৈশাখীকে সঙ্গে নিয়ে দিল্লি গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন শোভন। স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে শোভনের বিবাহবিচ্ছেদের মামলাও চলছে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর