শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১০ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ আগস্ট, ২০১৬ ০২:০০

খালেদা জিয়ার সঙ্গে ভারতীয় হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

ভারতের হাইকমিশনারের দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশে আসার পর প্রথমবারের মতো বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। গতরাতে গুলশানে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে আসেন তিনি। এ সময় ডেপুটি হাইকমিশনার ড. আদর্শ সোয়াইকা, ফাস্ট সেক্রেটারি (রাজনৈতিক) রাজেশ উইকি ও সেকেন্ড সেক্রেটারি মিসেস মনোস্মৃতিও তার সঙ্গে ছিলেন। হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা লাল-সাদা-হলুদ ফুলের একটি তোড়া খালেদা জিয়ার হাতে দেন। গত জানুয়ারিতে ঢাকায় হাইকমিশনারের দায়িত্ব নেওয়ার পর বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে এটাই শ্রিংলার প্রথম সাক্ষাৎ। রাত ৮টা থেকে দেড় ঘণ্টাব্যাপী সাক্ষাতে বাংলাদেশের সার্বিক পরিস্থিতি, অর্থনৈতিক অবস্থা, ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক উন্নয়নসহ নানা বিষয়ে আলোচনা হয় বলে বিএনপি নেতারা জানান। বৈঠকের পর বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, ভারতের নতুন হাইকমিশনার বাংলাদেশে এসে নানা কাজে ব্যস্ত ছিলেন। আজকে (মঙ্গলবার) বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে এসেছেন। একে সৌজন্য সাক্ষাৎ হিসেবে বর্ণনা করে তিনি বলেন, দুই দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলাপ হয়েছে। দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি কিংবা সন্ত্রাসবাদ দমন নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি না জানতে চাইলে সাবেক কূটনীতিক সাবিহ উদ্দিন বলেন, এটি একেবারে সৌজন্য সাক্ষাৎ।

এদিকে ভারতীয় হাইকমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সাক্ষাতে ভারত-বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার সাম্প্রতিক উন্নয়ন সম্পর্কে বিএনপি চেয়ারপারসনকে অবহিত করেন হাইকমিশনার। দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক সহজতর এবং অবকাঠামোগত ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের ওপর তিনি গুরুত্ব আরোপ করেন। এ ছাড়া সন্ত্রাস ও চরমপন্থার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের বাংলাদেশের পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন শ্রিংলা। হাইকমিশনার বলেছেন, ভারত সন্ত্রাসবাদ ও উগ্রবাদের সব রূপ এবং এর উত্থানকে নিন্দা করে। ভারত সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ এবং তার সংগ্রামে পাশে আছে বলে জানিয়েছেন। সাক্ষাৎকালে সাবিহ উদ্দিন ছাড়াও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরও খবর