শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:১৭

রায় ২১৯ পৃষ্ঠার, কপি পেয়েছেন আসামিরা

ফেনী প্রতিনিধি

রায় ২১৯ পৃষ্ঠার, কপি পেয়েছেন আসামিরা

ফেনীর সোনাগাজীর আলোচিত মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত হত্যা মামলার রায়ের নকলের কপি পেয়েছেন আসামিরা। নকলের কপিটি ২১৯ পৃষ্ঠার বলে জানা গেছে। গত ২৪ অক্টোবর ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মামুনুর রশিদ এ মামলার ১৬ আসামির সবার ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন। নিয়ম অনুযায়ী রায়ে আপত্তি থাকলে রায় ঘোষণার পর থেকে ৬০ দিনের মধ্যে উচ্চ আদালতে আপিল করতে হবে। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট হাফেজ আহম্মদ জানান, মঙ্গলবার মামলার রায়ের কপি হাই কোর্টে পাঠাবে আদালত।

২৭ মার্চ ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির শ্লীলতাহানি করেন একই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলা। একই দিন নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় অভিযোগ দাখিল করলে পুলিশ সিরাজ-উদ-দৌলাকে ওই দিনই আটক করে। ৬ এপ্রিল নুসরাতের আলিম পরীক্ষা চলাকালে কৌশলে নুসরাতকে মাদ্রাসার সাইক্লোন শেল্টারের ছাদে ডেকে নিয়ে যান তার সহপাঠী উম্মে সুলতানা পপি। ওখানে আগে থেকে অপেক্ষায় ছিলেন বোরকা পরা আরও চারজন।  তারা নুসরাতকে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মামলাটি তুলে নেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন। নুসরাত রাজি না হওয়ায় তারা তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সোনাগাজী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। আগুনে তার শরীরের ৯৫ ভাগ পুড়ে যাওয়ায় সেদিনই নুসরাতকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। পাঁচ দিন মৃত্যুযন্ত্রণায় ভুগে ১০ এপ্রিল চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুসরাত মারা যান।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর