শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:১৩

পুঁজিবাজারে বড় ধরনের উত্থান

এক দিনে ফিরল ১৫ হাজার কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক

পুঁজিবাজারে বড় ধরনের উত্থান

আগের সপ্তাহের ধসের পর বড় ধরনের উত্থান হয়েছে শেয়ারবাজারে। গতকাল সপ্তাহের প্রথম দিনের লেনদেনে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ২৩২ পয়েন্ট। যা সূচকটি চালু হওয়ার ৭ বছরের মধ্যে এক দিনের ব্যবধানে সর্বোচ্চ উত্থান। সূচকের এই উত্থানে ডিএসইর বাজার মূলধন এক দিনে বেড়েছে ১৫ হাজার কোটি টাকা। একই সঙ্গে সূচক বেড়েছে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই)।

ডিএসইএক্স সূচক ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি ৪ হাজার ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে যাত্রা শুরু করে। এর আগে ২০১৫ সালে সূচকটি সর্বোচ্চ ১৫৫ পয়েন্ট বেড়েছিল। প্রায় ১ বছর ধরে শেয়ারবাজার মন্দাবস্থায় রয়েছে। বিগত দুই মাসে মন্দাবস্থা চরমে পৌঁছায়। বিনিয়োগকারীদের নাভিশ্বাস ওঠে। এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী  শেয়ারবাজারের উন্নয়নে গত ১৬ জানুয়ারি উচ্চ পর্যায়ের নীতি-নির্ধারকদের সঙ্গে বৈঠক করেন এবং কয়েকটি নির্দেশনা দেন। যা  শেয়ারবাজারে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা তৈরি করে। এ ছাড়া স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালসের পরিচালকদের শেয়ার কেনার  ঘোষণা, গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদে প্রথম  কোনো বাংলাদেশিকে নিয়োগ ও তারল্য সংকট নিরসনে সরকারি ৪ ব্যাংকের বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত শেয়ারবাজারে ইতিবাচক ভূমিকা ফেলে। এসব খবরে ডিএসইএক্স সূচকটির রেকর্ড উত্থান হয়েছে বলে বিশেষজ্ঞদের অভিমত। গতকাল ডিএসইতে সূচক বেড়ে ৪ হাজার ৩৮২ পয়েন্টে দাঁড়ায়।  লেনদেন হয় ৪১১ কোটি ৩৬ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট। যা আগের দিন থেকে ১৪৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকা বেশি। ডিএসইতে ৩৫৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ৩৪৬টির শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ৬টির এবং ৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত থাকে। বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ার দর বাড়ায় বাজার মূলধনে বড় প্রভাব ফেলে। এক দিনে ১৫ হাজার কোটি টাকা বেড়ে মোট বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৩৪ হাজার কোটি টাকা। যা আগের সপ্তাহের লেনদেন শেষে ছিল ৩ লাখ ১৯ হাজার কোটি টাকা। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে স্কয়ার ফার্মার শেয়ার। কোম্পানিটির ১৯ কোটি ১৫ লাখ টাকার শেয়ার  লেনদেন হয়। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা সিঙ্গারের ১৭  কোটি ১৭ লাখ টাকার এবং ১৩ কোটি ২২ লাখ টাকার শেয়ার  লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে উঠে আসে লাফার্জহোলসিম। ডিএসইর টপটেন লেনদেনে উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে : খুলনা পাওয়ার, এসএস স্টিল, গ্রামীণফোন, এডিএন টেলিকম, এনসিসি ব্যাংক, রিং শাইন এবং ব্যাংক এশিয়া। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই গতকাল ৬৭৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ২৭৭ পয়েন্টে। সিএসইতে হাতবদল হওয়া ২৫৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর  বেড়েছে ২৩১টির, কমেছে ১৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১১টির দর। সিএসইতে ৪৩ কোটি ৬৮ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর