শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৪৫

গাজীপুরে গণধর্ষণ অভিনেত্রীকে, ভাবিকে ধর্ষণ নারায়ণগঞ্জে

প্রতিদিন ডেস্ক

দেশের বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণ ও গণধর্ষণ ঘটেছে। এর মধ্যে গাজীপুরে অভিনেত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে পাঁচজন ও রংপুরে কিশোরী ধর্ষণে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ভাবিকে ধর্ষণের অভিযোগে দেবরকে পুলিশ হন্যে হয়ে খুঁজছে। পাশাপাশি গাজীপুরে আরেকটি ধর্ষণের মামলায় বাবা ও সৎ ভাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য-

গাজীপুর : কাশিমপুরে এক অনুষ্ঠানের জন্য ডেকে নিয়ে এক কিশোরী অভিনেত্রীকে গণধর্ষণ করেছে দুর্বৃত্তরা। পুলিশ এ ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে। এরা হলেন কাশিমপুর থানার সারদাগঞ্জ লিয়াকত মার্কেট এলাকার জাহাঙ্গীর আলম ওরফে শুভ (২৩), টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার খৈলসিন্দু (উয়ার্শী) এলাকার সুমন মিয়া (২৭), ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ভদ্রাসনের রাসেল তালুকদার (৩৫), নওগাঁর আত্রাই উপজেলার সমসপাড়ার জহির উদ্দিন (৩২) ও রংপুরের হারাগাছ উপজেলার গোফরটারীর সাহাবুল ওরফে আইজুল (৩৭)। তারা সবাই কাশিমপুর থানা এলাকায় বসবাস করছেন। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) উপ-কমিশনার (গোয়েন্দা) জাকির হাসান জানান, কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ার এক কিশোরী গাজীপুর সিটির কোনাবাড়ীর আমবাগে ভাড়া থেকে অভিনয় ও নৃত্যশিল্পী হিসেবে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নিতেন। ৩১ জানুয়ারি রাতে একটি স্টেজ শোতে অভিনয়ের জন্য ওই কিশোরীকে কাশিমপুরের হাতিমারায় নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। সেখান থেকে জাহাঙ্গীর ও তার দুই সহযোগী তাকে সারদাগঞ্জের বর্ষাডেঙ্গার রাসেল তালুকদারের টিনশেড ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে জাহাঙ্গীরসহ পাঁচ যুবক কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে কিশোরী কৌশলে পালিয়ে যান এবং গতকাল থানায় মামলা করেন কিশোরী। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে জাহাঙ্গীর, সুমন, রাসেল, জহির ও আইজুলকে গ্রেফতার করেছে। এদের আদালতের মাধ্যমে গতকাল জেল হাজতে পাঠানো হয়।

রংপুর : তারাগঞ্জে মঙ্গলবার রাতে ধর্ষণের অভিযোগ এনে এক কিশোরীর মা থানায় মামলা করেছেন। রাতেই অভিযুক্ত মিজানুর রহমানকে (২০) আটক করে পুলিশ। গতকাল তাকে আদালতের মাধ্যমে রংপুর জেল হাজতে পাঠানো হয়।

নারায়ণগঞ্জ : ১ ফেব্রুয়ারি আড়াইহাজার উপজেলার ব্রাহ্মণদি ইউনিয়নের বালিয়াপাড়ায় ঘর পরিষ্কারের কথা বলে ডেকে নিয়ে চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গতকাল মামলা হয়েছে।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে আঙিনা পরিষ্কারের কথা বলে ভাবিকে ডেকে নিয়ে দেবর নাঈম জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। লোকলজ্জার ভয়ে তিনি বিষয়টি গোপন রাখেন। তবে অসুস্থ হয়ে পড়লে প্রথমে আড়াইহাজার হাসপাতাল, পরে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি হন। অভিযুক্ত বালিয়াপাড়া গ্রামের মৃত সিদ্দিক বেপারীর ছেলে নাঈমকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

গাজীপুর : গাজীপুরে বাবা ও সৎভাইয়ের ধর্ষণে এক স্কুলছাত্রী আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার অভিযোগে মামলা হয়েছে। পুলিশ বাবা ও সৎভাইকে গ্রেফতার করেছে। এরা হলেন সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার গুয়াবাড়ী এলাকার জুবায়ের খান (৪০) ও তার ছেলে নাসির উদ্দিন (২০)।

জিএমপির কোনাবাড়ী থানার ওসি আবু সিদ্দিক জানান, প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় দ্বিতীয় বিয়ে করেন জুবায়ের। দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে তিনি কোনাবাড়ীর হরিণাচালায় থেকে রাজমিস্ত্রির সহকারী হিসেবে কাজ করেন। তার দ্বিতীয় সংসারের সন্তান নাসির উদ্দিন স্থানীয় একটি স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র। গত বছর জুবায়ের তার প্রথম সংসারের মেয়েকে (১৯) গাজীপুরে এনে একটি স্কুলে নবম শ্রেণিতে ভর্তি করান। তারা একই বাসায় বসবাস করে আসছিলেন। এদিকে ১৫ জুন রাতে পরিবারের সদস্যদের অনুপস্থিতিতে জুবায়ের ভয়ভীতি দেখিয়ে তার মেয়েকে ধর্ষণ করেন। পরে আরও একাধিকবার ধর্ষণ করেন। এদিকে সৎভাই নাসিরও ওই কিশোরীকে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করেন। এতে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। বিষয়টি তার মাকে জানালে গতকাল থানায় মামলা করেন। পুলিশ জুবায়ের ও নাসিরকে গ্রেফতার করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর