শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৪৪

৫০০ ভরি সোনা লুট

সিসি ক্যামেরায় ধরা তিনজন

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর রাপা প্লাজার তৃতীয় তলার টয়লেটের ওপর গ্রিল কেটে ঢুকে দুর্বৃত্তরা। পরে একে একে দ্বিতীয় তলার ১৯টি তালা খুলে এবং ভেঙে ঢুকে রাজলক্ষ্মী জুয়েলার্সসহ অন্যসব দোকানে। সিসিটিভি ক্যামেরা ভাঙার আগ পর্যন্ত ধারণ করা দৃশ্যে মুখোশপরা দুই যুবকের ছবি এসেছে বলে নিশ্চিত করেছে সূত্র। এরা রাজলক্ষ্মী জুয়েলার্সে ঢুকে চুরির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। অন্য একটি সিসিটিভি ক্যামেরায় দুজন ২৫-৩০ বছরের মুখোশবিহীন অজ্ঞাত যুবকের অস্পষ্ট ছবি ধরা পড়েছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, খুব শিগগিরই হয়তো তারা চোরদলকে পাকড়াও করতে পারবেন।

জানা গেছে, দোকানে সোনার ভল্ট বা লকার ভাঙতে পারেনি। সেখানকার সোনা অক্ষত আছে। শুধু ক্রেতাদের জরুরি ডেলিভারির জন্য ডিসপ্লেতে সাজানো অলংকারগুলো চুরি হয়েছে। একের পর এক তালা খোলা, দোকানের ভিতরে ঢুকে চুরি- সবই ধরা পড়েছে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরায়। তবে চোরদের মুখে মুখোশ থাকায় তাদের চিহ্নিত করতে কষ্ট হচ্ছে পুলিশের। তাদের চেহারার ছবি এঁকে প্রকৃত চেহারা বের করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। এরই মধ্যে চোরদের ধরতে মাঠে নেমেছে থানা পুলিশ ছাড়াও, ডিবি ও গোয়েন্দারা। সিসিটিভির ফুটেজে অন্তত পাঁচজনের ছবি পাওয়া গেছে। তদন্তকারীদের ধারণা দুর্বৃত্তরা ‘মাস্টার কি’ ব্যবহার করেছে। এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, আমরা চোরদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের চেষ্টা করছি।

মামলার তদন্ত তদারক কর্মকর্তা ধানমন্ডি জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আর এম ফয়জুর রহমান বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি ঘটনাটি উদঘাটনের।’ গত শনিবার গভীর রাতে রাপা প্লাজার দ্বিতীয় তলায় রাজলক্ষ্মী জুয়েলার্স, গার্মেন্ট পণ্য বিক্রি প্রতিষ্ঠান জেন্টল পার্ক, মুনসুন রেইন, ভোগ সুলতানা নামের দোকানগুলোতে দুর্ধর্ষ চুরি হয়। চোরেরা এ দোকানগুলোর তালা না কেটে না ভেঙে তালা খুলে ভিতরে ঢুকে ৪০০ ভরির বেশি সোনার অলংকার ও চার দোকান থেকে ৪ লাখ টাকার বেশি চুরি করে নেয়। এ ঘটনায় রাজলক্ষ্মী জুয়েলার্সের মালিক মহাদেব কর্মকার ধানমন্ডি থানায় মামলা করেছেন। মামলার তদন্তে নেমে পুলিশ তালা খোলার চাবির রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর