শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ মার্চ, ২০২১ ০০:০৮

মেয়ে না হওয়ায় ছেলেকে হত্যা!

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার আরাজি দিলালপুর বানিয়াপাড়া গ্রামে সুইম নামে ৪৮ দিনের ছেলেকে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ বাড়ির পাশের ডোবায় ফেলে দেন বাবা হামিদুল হক। এ হত্যায় মঙ্গলবার বিকালে বদরগঞ্জ আমলি আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন তিনি। হামিদুল হকের জবানবন্দির উদ্ধৃতি দিয়ে বদরগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুর রহমান জানান, হামিদুল হকের তিনটি ছেলে আছে। তিনি একটি মেয়ের আশায় স্ত্রীকে বাচ্চা নিতে বলেন। পরের সন্তানটিও ছেলে হয়। সিজারিয়ান অপারেশনে এ সন্তানটি হওয়ায় তার অনেক টাকা ব্যয় হয়। এতে ক্ষুব্ধ ছিলেন তিনি। সেই ছেলেকে অন্যের কাছে দিয়ে মেয়ে বদল করতে চেয়েছিলেন হামিদুল। কিন্তু এতে রাজি ছিলেন না স্ত্রী ফরিদা পারভীন। একপর্যায়ে ৭ মার্চ রাত ৯টার দিকে হামিদুল ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত ছেলে সুইমকে নিয়ে বের হন। পরে শ্বাসরোধে হত্যার পর বাড়ির পাশে ডোবায় লাশ ফেলে দেন। ওসি হাবিবুর রহমান বলেন, ওই দিনই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হামিদুল ও ফরিদা পারভীনকে আটক করা হয়। পরে হামিদুল হত্যার দায় স্বীকার করলে তাকে আদালতে নেওয়া হয়। হত্যায় সম্পৃক্ততা না পাওয়ায় ফরিদারকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।