Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ এপ্রিল, ২০১৯ ১৬:৫২

টাকার বিনিময়ে রাজনীতি করি না : ড. কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক

টাকার বিনিময়ে রাজনীতি করি না : ড. কামাল
ফাইল ছবি

৮২তম জন্মবার্ষিকীতে শুভেচ্ছাসিক্ত হয়ে গণফোরামের সভাপতি ও দেশের প্রবীণ রাজনীতিবিদ ড. কামাল হোসেন বলেছেন, আমরা গর্ব করি যে, আমরা টাকার বিনিময়ে রাজনীতি করি না। আমরা ধর্মকে কাজে লাগিয়ে রাজনীতি করি না। আমরা অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি করি জনগণের ওপর ভিত্তি করি।

শনিবার রাজধানীতে অনুষ্ঠিত গণফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় এসব কথা বলেন তিনি। 

এর আগে ড. কামাল হোসেন মতিঝিলের ইডেন কমপ্লেক্সস্থ দলীয় কার্যালয়ে এসে পৌঁছালে দলের নেতা-কর্মীরা ফুল দিয়ে তাকে শুভেচ্ছা জানান।

পরে গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টুসহ দলের নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে কেক কাটেন তিনি। জন্মদিনের সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে জনৈক শিল্পী দু’টি গানও পরিবেশন করেন।'

এসময় উপস্থিত ছিলেন গণফোরাম নেতা মফিজুল ইসলাম খান কামাল, আলতাফ হোসেন, সিরাজুল হক, অধ্যাপক আবু সাইয়িদ, রেজা কিবরিয়া, আ ম সা আ আমিন, মহসিন রশিদ, জগলুল হায়দার আফ্রিক, মোশতাক আহমেদ, রফিকুল ইসলাম পথিক প্রমুখ।

প্রায় তিন দশক আগে আওয়ামী লীগ ছেড়ে গণফোরাম গঠনের পর এখনই দলটি সবচেয়ে বেশি আলোচিত। গত একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিএনপির সঙ্গে জোট বেধে ভোটে অংশ নেওয়ার পর অনেকে এই দলে যোগ দেন। এই প্রথম সংসদ নির্বাচনে দু’টি আসনে বিজয়ীও হয়েছে কামাল হোসেনের দল। 

এ বিষযে ইঙ্গিত করে ড. কামাল হোসেন বলেন, গণফোরাম এখন আগের চেয়ে শক্তিশালী হয়েছে। এবার ভালো ভালো লোকজন এগিয়ে এসে আমাদের দলে যোগ দিয়েছেন। তারা যোগদান করছেন এজন্য যে, আমাদের দল কর্মক্ষম, আমাদের দলের জনপ্রিয়তা বাড়ছে এবং তারা এসে অবদান রাখতে চান। এখন আমাদের সবচেয়ে বড় কাজ হবে সাংগঠনিক কাজে নিজেদের নিয়োজিত করা। আমাদের মনে রাখতে হবে শক্তিশালী সংগঠন ছাড়া অর্থপূর্ণ কাজ করা যাবে না, দেশে পরিবর্তন আনা যাবে না। 

ড. কামাল আরো বলেন, যে পরিবর্তন সবাই চাচ্ছে সেটা হচ্ছে কার্যকর গণতন্ত্র। গঠনমূলক রাজনীতির মধ্য দিয়ে এই পরিবর্তন আনতে হবে। আমাদের গঠনমূলক কর্মসূচির ভিত্তিতে যে রাজনীতি দেশে গড়ে উঠছে, তার মধ্য দিয়ে আকাঙ্ক্ষিত পরিবর্তন আমরা আগামীতে আনতে পারব দেশে।

উল্লেখ্য, ১৯৩৭ সালের ২০ এপ্রিল অবিভক্ত ভারতে কলকাতায় জন্ম গ্রহণ করেন কামাল হোসেন। কলকাতার সেন্ট জেভিয়ার্স স্কুলের মাধ্যমে তার শিক্ষা জীবন শুরু হয়। ঢাকার সেন্ট গ্রেগরিজ স্কুলে মাধ্যমিক এবং নটর ডেম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাস করে তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের নটর ডেম ইউনিভার্সিটি থেকে ১৯৫৫ সালে অর্থনীতিতে ডিগ্রি নেন কামাল। 

এছাড়া ১৯৫৭ সালে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন শাস্ত্রে স্নাতক এবং একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিসিএল ও ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৫৯ সালে তিনি ঢাকা হাইকোর্টে আইনজীবী হিসেবে যোগ দেন। বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতিও ছিলেন তিনি। স্বাধীনতার আগে আওয়ামী লীগে যোগ দেন কামাল হোসেন। 

১৯৭২ সালে স্বাধীন বাংলাদেশের সংবিধান তৈরির জন্য যে কমিটি হয়েছিল, সেই কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাসনামালে তিনি প্রথমে আইনমন্ত্রী, পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। ১৯৯২ সালে আওয়ামী লীগ থেকে বেরিয়ে এসে ১৯৯৩ সালে গঠন করেন গণফোরাম। তিনি বিয়ে করেছেন মানবাধিকার কর্মী হামিদা হোসেনকে। তাদের দুই মেয়ে সারা হোসেন ও দিনা হোসেন।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য