শিরোনাম
প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর, ২০২০ ১৬:২৭
প্রিন্ট করুন printer

কানাডায় মৃত্যুর মিছিল বেড়েই চলেছে

আহসান রাজীব বুলবুল, কানাডা

কানাডায় মৃত্যুর মিছিল বেড়েই চলেছে

কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে মৃত্যুর মিছিলও যেন বেড়েই চলেছে। অনেক ক্ষেত্রে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করতে প্রিমিয়ার ও প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। কানাডায় মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় ১২ হাজার।

আলবার্টায় ক্রমবর্ধমান হারে করোনা বৃদ্ধি পাওয়ায় হাসপাতাল ও নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র গুলোতে ব্যাপক চাপ পড়ছে।
সারা কানাডার মধ্যে আলবার্টায় এখন সর্বোচ্চ করোনা পজিটিভ রোগী রয়েছে। আজ নতুন করে ৫ জনের মৃত্যুর খবর  এবং ১৭ শত ৩১ জনের শরীরে নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আলবার্টায় একের পর এক নতুন রেকর্ড তৈরি করছে।

ইতিমধ্যে ঘোষণা দেয়া হয়েছে ৩০ নভেম্বর থেকে সপ্তম থেকে গ্রেট ১২ পর্যন্ত ক্লাসের ছাত্র-ছাত্রীদের ঘরে বসে ক্লাস করার জন্য। ইতিমধ্যেই আলবার্টার ক্যালগেরির সিটি মেয়র নাহিদ ন্যান্সি ক্যালগেরি সিটি কে জরুরী অবস্থা জারি করেছেন।

অন্যদিকে কানাডার প্রধান চারটি প্রদেশ অন্টারিও, বৃটিশ কলম্বিয়া, আলবার্টা এবং কুইবেকে নাটকীয় ভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। আর করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির কারণে হাসপাতাল, নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে তুলনামূলকভাবে ডাক্তার ও নার্সদের উপর চাপ পড়ছে।

কানাডার সবচেয়ে বড় অনুষ্ঠান "বড়দিনে"র এখনও এক মাস বাকি। কানাডার বিভিন্ন প্রদেশের প্রিমিয়াররা ঝাঁপিয়ে পড়ছেন কিভাবে কানাডিয়ানদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সুশৃংখল নিয়ন্ত্রণ এবং ছুটির উপভোগ্য সময়গুলোতে ভারসাম্য তৈরি করা যায়।

কানাডার প্রধান জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. থেরেসা ট্যাম কানাডিয়ানদের মহামারি চলাকালীন ছুটির মৌসুমে সংক্রমণ ঝুঁকি কমাতে জমায়েত সীমাবদ্ধ করা এবং প্রয়োজনীয় কাজ ছাড়া বাইরে না যাওয়ার ব্যাপারে আবারও সতর্ক করেছেন।
অন্যদিকে, করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ফাইজারের ভ্যাকসিনটিকে গ্রহণযোগ্য মনে করছে কানাডা। ক্রিসমাসের আগেই এটি ব্যবহারের অনুমোদন দিতে পারে হেলথ কানাডা। স্বাস্থ্যখাতের নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা হেলথ কানাডার প্রধান উপদেষ্টা ড. সুপ্রিয়া শর্মা বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের এই তথ্য জানিয়ে বলেছেন, হেলথ কানাডার পর্যালোচনায় ফাইজারের ভ্যাকসিনটি সবচেয়ে অগ্রসর এবং নিরাপদ মনে হয়েছে। ক্রিসমাসের আগেই এর ব্যবহারের অনুমোদন দিতে হেলথ কানাডা কাজ করছে। যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নও ক্রিসমাসের আগেই ভ্যাকসিন অনুমোদনের পকিল্পনা নিয়েছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৬৪ হাজার ৮১০ জন, মৃত্যুবরণ করেছেন ১১ হাজার ৯ শত ৭৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৯০ হাজার ৭ শত জন।

কানাডার বিভিন্ন প্রদেশের বাসিন্দারা আশঙ্কার মধ্য দিয়ে দিন যাপন করছেন। একদিকে শীতের প্রকোপ অন্যদিকে করোনা ভাইরাসের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। তবুও প্রতীক্ষিত ভ্যাকসিন আর সুদিনের অপেক্ষায় কানাডাবাসী।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর