শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২১ মে, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ মে, ২০১৬ ২৩:৪৩

বোর্ডের সমালোচনায় গেইল স্যামি

ক্রীড়া ডেস্ক

বোর্ডের সমালোচনায় গেইল স্যামি

মাস দুয়েক আগে টি-২০ বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে ক্রিকেট বিশ্বকে চমকে দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। পুরো টুর্নামেন্টে ক্যারিবীয়রা ছিল আন্ডারডগ। অথচ ড্যারেন স্যামি, ক্রিস গেইল, ডোয়াইন ব্রাভো, আন্দ্রে রাসেলদের পারফরম্যান্সে দলটিই কিনা বাজিমাত করল টুর্নামেন্টে। বিশ্বকাপ জেতানোর দুই মাসের মাথায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল থেকে বাদ পড়লেন এই চার ক্রিকেটার। আগামী মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিয়ে তিন জাতির টুর্নামেন্টে দর্শক হয়ে থাকতে হবে চার ক্রিকেটারকে। বাদ দেওয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডকে সমালোচনায় ছিন্নভিন্ন করেছেন গেইল, স্যামি, ব্রাভোরা। তারা প্রশ্ন তুলেছেন দল নির্বাচন নিয়ে। তিন জাতির টুর্নামেন্টে তাদের যে নীতি অনুসরণ করে বাদ দিয়েছে বোর্ড, সেই একই নীতিতে দলভুক্ত করেছে কাইরন পোলার্ড ও সুনীল নারাইনকে। 

চুক্তি নিয়ে ক্যারিবীয় ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে খেলোয়াড়দের ঝামেলা চলছে অনেক দিন ধরে। টি-২০ বিশ্বকাপে সেই সমস্যাকে পাশ কাটিয়ে খেলেছিলেন স্যামিরা। অসাধারণ খেলে দলকে চ্যাম্পিয়ন করার পর বোর্ড তাদের অবস্থান থেকে সরে দাঁড়ায়নি। ফলে তিন জাতির টুর্নামেন্টের প্রথম চার ম্যাচে এদের দলভুক্ত করেনি। কিন্তু নিয়েছে ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা পোলার্ড ও অ্যাকশন শুধরে ফেরা নারাইনকে। বাদ পড়ায় দল নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ব্রাভো, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের নির্বাচকরা হচ্ছেন এক একজন ক্লাউন। অবাক হয়েছি, যারা দলের জন্য ভালো ছিল না আগে, তাদেরকেই দলে নিয়েছে। আমাদের বাদ দেওয়ার কারণ দেখিয়েছে আমরা ঘরোয়া ক্রিকেট খেলিনি। অথচ যাদের নেওয়া হয়েছে তাদের অনেকেই খেলেননি। বিষয়টি রীতিমতো হাস্যকর।’ দল গড়ার ব্যাখ্যায় নির্বাচকরা জানিয়েছেন, ঘরোয়া ক্রিকেটে যারা সুপার ফিফটি টুর্নামেন্ট খেলেননি, তাদের নেওয়া হয়নি। গেইল সমালোচনা করে বলেন, ‘আগে পোলার্ডকে নেওয়া হয়নি। তখন বলা হয়েছিল ইনজুরি। নারাইন সুপার ফিফটিতে না খেলেও জায়গা পেয়েছেন। অদ্ভুত নীতিমালা বোর্ডের।’

বোর্ডের সঙ্গে ক্যারিবীয় ক্রিকেটারদের অম্ল-মধুর সম্পর্ক এখনই নয়, সত্তর-আশি দশক থেকেই চলছে। নিশ্চিত এই সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও তিক্ত হবে, কোনো সন্দেহ নেই। 


আপনার মন্তব্য