শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ জুলাই, ২০১৯ ২৩:৩০

রোমাঞ্চের অ্যাশেজ শুরু আজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

রোমাঞ্চের অ্যাশেজ শুরু আজ

মেলবোর্নে ১৪২ বছর আগে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে শুরু টেস্ট ক্রিকেটের। সময়ের হিসেবে দুই দলই টেস্ট ক্রিকেটের সবচেয়ে পুরনো। ঐতিহ্যবাহী দল দুটির লড়াই এখন ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও উত্তেজনাকর। ১৮৭৭ সালে দুই দলের ম্যাচ দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটের শুরু হলেও অ্যাশেজ শুরু আরও পাঁচ বছর পর। ১৮৮২ সালে শুরু অ্যাশেজ এখন পর্যন্ত হয়েছে ৭০টি। বার্মিংহামের এজব্যাস্টনে আজ শুরু হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে পুরনো ও ঐতিহ্যবাহী অ্যাশেজ সিরিজ। আভিজাত্যের সিরিজটি খেলতে প্রস্তুত জো রুটের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড এবং পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া।

ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধারক সিরিজ নিয়ে ক্রিকেটপ্রেমীদের আগ্রহের কমতি নেই। জমজমাট সিরিজটি নাম নিয়েও রয়েছে অসাধারণ এক ইতিহাস। ১৮৮২ সালে ওভালে অস্ট্রেলিয়ার ফাস্ট বোলার ফ্রেড স্পফোর্থের বিধ্বংসী বোলিংয়ে ৮৫ রানের টার্গেট টপকাতে পারেনি ইংল্যান্ড। হেরে যায় ১০ রানে। ঘরের মাঠে হেরে যাওয়ায় পরের দিন লন্ডনের প্রধান দৈনিক ‘দ্য স্পোর্টিং টাইমস’ বিদ্রƒপাত্মক হেডিং করে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনে লেখা হয়েছিল, ‘ইংলিশ ক্রিকেটকে চিরস্মরণীয় করে রেখেছে ওভালে ১৮৮২ সালের ২৯ আগস্ট। সেদিন ইংলিশ ক্রিকেটকে ভস্মীভূত করা হয়েছে এবং ছাইগুলো অস্ট্রেলিয়াকে প্রদান করেছে।’ তখন থেকে শোকের প্রতীক হিসেবে শুরু অ্যাশেজের।

চির প্রতিদ্বন্দ্বী দল দুটি ১৮ মাস থেকে ৩০ মাসের মধ্যে হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে ৫ টেস্টে অ্যাশেজ খেলছে। সর্বশেষ অ্যাশেজ হয়েছিল ২০১৮ সালে। ঘরের মাটিতে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ জিতেছিল। ২০১৫ সালে ইংল্যান্ড জিতেছিল ৩-২ ব্যবধানে। সব মিলিয়ে দুই দল সিরিজ খেলেছে ৭০টি। এতে তাসমান সাগর পাড়ের দেশ অস্ট্রেলিয়ার জয় ৩৩টি এবং ইংল্যান্ডের ৩২টি। দুই দেশ এখন পর্যন্ত টেস্ট খেলেছে ৩৪৬টি। এরমধ্যে অস্ট্রেলিয়ার জয় ১৪৬ এবং ইংল্যান্ডের ১০৮। হারজিত হয়নি ৯৪ টেস্টে। আগের সিরিজগুলোর চেয়ে এবারেরটির আকর্ষণ একটু আলাদা। চির প্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এই প্রথম বিশ্বচ্যাম্পিয়নের তকমা গায়ে সাঁটিয়ে খেলছে ইংল্যান্ড। খেলা মাঠে গড়ানোর আগেই কথার যুদ্ধ হয়ে গেছে। এবারের সিরিজে বাড়তি নজরে তিন অসি ক্রিকেটার স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার ও ব্যানক্রফটের দিকে। জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বল ডক্টরিংয়ে জড়িত হয়ে স্মিথ ও ওয়ার্নার এক বছর নিষিদ্ধ হয়েছিলেন সব ধরনের ক্রিকেটে।


আপনার মন্তব্য