Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ মে, ২০১৯ ১৩:৩২

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয়ে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি সারল শ্রীলঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয়ে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি সারল শ্রীলঙ্কা

ব্যাটসম্যান-বোলারদের নৈপুণ্যে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে স্কটল্যান্ডকে বৃষ্টি আইনে ৩৫ রানে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ফলে বিশ্বকাপের আগে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ১-০ ব্যবধানে জিতে নিলো লংকানরা। বৃষ্টির কারণে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে পরিত্যক্ত হয়েছিলো।

এডিনবার্গে অনুষ্ঠিত ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় স্কটল্যান্ড। ব্যাট হাতে দুর্দান্ত শুরু করে শ্রীলঙ্কা। উপরের সারির প্রথম তিন ব্যাটসম্যানই জ্বলে উঠেন। তিন ব্যাটসম্যানের হাফ-সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথ পেয়ে যায় লংকানরা। দুই ওপেনার আভিস্কা ফার্নান্দো ও অধিনায়ক দিমুত করুনারত্নে উদ্বোধনী জুটিতে ১২৩ রান করেন। ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৭৮ বলে ৭৪ রান করে থামেন ফার্নান্দো।

এরপর ৮১ রানের জুটি গড়ে দলের স্কোর ২শ পার করেন করুনারত্নে ও তিন নম্বরে নামা কুশল মেন্ডিস। ৭৭ রান করা করুনারত্নের বিদায়ে ভাঙে এই জুটি। তার ৮৮ বলের ইনিংসে ৭টি চার ছিলো। হাফ-সেঞ্চুরির পর মেন্ডিসও বেশি দূর যেতে পারেননি। তবে মারমুখী মেজাজে ৪টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৫৬ বলে ৬৬ রান করেন তিনি।

পরের দিকে লাহিরু থিরিমান্নে ছাড়া আর কেউই ব্যাট হাতে বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। থিরিমান্নের ৪০ বলে অপরাজিত ৪০ রানের উপর ভর করে ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ৩২২ রানের সংগ্রহ পায় শ্রীলঙ্কা। স্কটল্যান্ডের ব্র্যাড হুইল ৪৯ রানে ৩ উইকেট নেন।

জবাবে ২৭ ওভারে ৩ উইকেটে ১৩২ রান তুলে স্কটল্যান্ড। এরপর বৃষ্টি নামলে ম্যাচ জয়ের জন্য ৩৪ ওভারে জয়ের জন্য ২৩৫ রানের নয়া টার্গেট পায় তারা। অর্থাৎ শেষ ৭ ওভারে আরও ১০৩ রান করতে হবে স্কটিশদের। কিন্তু শেষ ৭ ওভারে ৬৭ রান তুলতে পারে স্কটল্যান্ড। ফলে ৩৩.২ ওভারে ১৯৯ রানে অলআউট হয় স্কটল্যান্ড। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬১ রান করেন জির্ওজি মুনসি। এছাড়া ম্যাথু ক্রস ৫৫ ও অধিনায়ক কাইল কোয়েৎজার ৩৪ রান করেন। নুয়ান প্রদীপ ৩৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হয়েছেন।

আগামী ১ জুন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে শ্রীলঙ্কা। তার আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২৪ মে ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২৭ মে দু’টি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবে লংকানরা।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য