শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ মার্চ, ২০২১ ১০:৪৯
আপডেট : ১১ মার্চ, ২০২১ ১০:৫৪
প্রিন্ট করুন printer

প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় তামিম, ধন্যবাদ জানাতে চান জেসিন্ডাকে

অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় তামিম, ধন্যবাদ জানাতে চান জেসিন্ডাকে
তামিম ইকিবাল

তিন ওয়ানডে ও দুই টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে নিউজিল্যান্ড সফরে আছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। ঠিক দুই বছর আগে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ শহরেই ভয়াবহ এক সন্ত্রাসী হামলা থেকে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছিলেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটররা। 

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ ক্রাইস্টচার্চের দু'টি মসজিদে জুম্মার দিনে মুসল্লিদের উপর গুলীবর্ষণ করেছিল ব্রেন্টন ট্যারেন্ট নামে একজন অস্ট্রেলিয়ান সন্ত্রাসী। তাতে মারা গিয়েছিলেন ৫১ জন। ক্রাইস্টচার্চে টেস্ট না খেলেই দেশে ফিরেন ক্রিকেটাররা। সন্ত্রাসী হামলার মুখে না পড়লেও তামিমরা ভয়াবহতা দেখেছিলেন কাছ থেকে। সেবার নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড ও সরকারের প্রচেষ্টায় দেশে ফিরে আসেন টাইগাররা। 

গতকাল বুধবার (১০ মার্চ) বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্নের প্রতি। এসময় স্পিন-বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরির দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার কথাও জানান তিনি। নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী আর্ডাননের উদ্দেশে তামিম বলেন, "নিউজিল্যান্ড খুবই সুন্দর দেশ এবং দেশটির মানুষজনও বেশ চমৎকার। এই নিয়ে আমি এখানে চার বা পাঁচবারে জন্য এলাম। আমার উচিত প্রধানমন্ত্রীকে জানানো, ঐ কঠিন সময়ে উনি যেভাবে এগিয়ে এসেছিলেন তার জন্য সতিই প্রত্যেক বাংলাদেশি উনার প্রশংসা করেছেন। উনি অসাধারণ কাজ করেছিলেন। আমার যদি উনার সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ হয়, ব্যক্তিগতভাবে আমি উনাকে ধন্যবাদ জানাবো।" 

এছাড়া কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিনেশন প্রোগ্রামের জন্য তামিম ধন্যবাদ জানান বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও। নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়া বাংলাদেশের অধিকাংশ সদস্য ঢাকা ছাড়ার আগে করোনার টিকা নিয়েছিলেন। করোনাভাইরাসের টিকা পাওয়ার ক্ষেত্রে দূরদর্শী ভূমিকার জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারও উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে তামিম বলেন, "কোনা একটা পর্যায়ে সবাইকেই টিকা নিতে হবে। আমাদের দেশ অসাধারণ কাজ করেছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সত্যিই দূরদর্শী। অগ্রণী ভূমিকা নিয়ে আগে থেকেই সব ব্যবস্থা করেছেন। অসাধারণ কাজ করেছেন তিনি। জাতি হিসাবে আমরা খুবই সৌভাগ্যবান। শুধু আমরা ক্রিকেটাররাই নই, সাধারণ মানুষও বিনামূল্যে টিকা পাচ্ছে। বাংলাদেশকে নিয়ে আমি গর্বিত। আমি নিশ্চিত, অন্যান্য দেশও আমাদের অনুসরণ করবে। সবাইকে টিকা নিতে হবে। আমি নিজেও প্রথম ডোজ নিয়েছি। খারাপ লাগেনি। দারুণ ছিল সবকিছু।"


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত