শিরোনাম
৯ ডিসেম্বর, ২০২১ ১০:১১

অধিনায়ক কামিন্সের স্বপ্নের শুরু

অনলাইন ডেস্ক

অধিনায়ক কামিন্সের স্বপ্নের শুরু

প্যাট কামিন্স।

মাঠে নামার আগে বলেছিলেন, অভিষেকের দিন যেমন অনুভূতি ছিল, তেমনই হচ্ছে অধিনায়ক হিসেবে প্রথম ম্যাচের আগে। আর মাঠে প্রথম দিনটা কাটানোর পর নিশ্চয়ই স্বর্গে আছেন অস্ট্রেলিয়ার নতুন অধিনায়ক প্যাট কামিন্স। কারণ তার পারফরম্যান্স। 

অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটের ইতিহাসে বোলারদের অধিনায়ক হওয়ার খুব একটা নজির নেই। সেই নজিরটাই তিনি করেছেন। আর পারফরম্যান্স দিয়ে তৈরি করলেন আরও একটা নজির। অ্যাসেজ সিরিজে অধিনায়ক হিসেবে পাঁচ উইকেট। ১৯৮২ সালে ইংল্যান্ডের বব উইলিস এই কৃতিত্ব গড়েছিলেন। 

২০২১ সালে যা অ্যাসেজের মঞ্চে ফিরিয়ে আনলেন প্যাট কামিন্স। তার ও অস্ট্রেলিয়ার বাকি পেসারদের দাপটে অ্যাসেজের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৪৭ রানে গুটিয়ে গেল ইংল্যান্ড।

প্রথম দিনের খেলার শেষে কি বললেন অধিনায়ক? খুব বেশি শব্দ খরচ করেননি। ছোট্ট প্রতিক্রিয়ায় অজিদের নতুন নেতা বলছেন, দারুণ একটা শুরু। টস হারাটা খুব খারাপ ছিল না। দলের সবাই নিজেদের কাজটা ঠিকঠাক করতে পেরেছে। ইংল্যান্ডের মতো দলকে ১৫০ রানের কমে আটকে রাখাটাই প্রমাণ করে কতটা ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করেছে দল। ব্যক্তিগত ভাবে দুইটি উইকেট পেলেই ভালো লাগত। কিন্তু পাঁচটা উইকেট, সত্যিই দারুণ শুরু।

ঘরের মাঠে ভারতের বিরুদ্ধে শেষ টেস্ট খেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। প্রায় দশ মাস আগে। সেই সিরিজটাও রাহানের টিম ইন্ডিয়া জিতেছিল। অস্ট্রেলিয়ার পারফরম্যান্স , বিশেষত পেস বোলারদের পারফরম্যান্স নিয়ে অনেক কথা উঠেছিল। নেতা হিসেবে তাই প্রথম টেস্ট থেকেই চ্যালেঞ্জের মুখে ছিলেন কামিন্স। যে চ্যালেঞ্জটা গোটা দলকে সঙ্গে নিয়ে, প্রথম দিনটা ভালই সামলে দিলেন ৪৭তম অজি অধিনায়ক। 

হাসিব হামিদ, বেন স্টোকস, ক্রিস ওকস, ওলি রবিনসন ও মার্ক উড। কামিন্সের উইকেট শিকারের তালিকায় আছে ইংল্যান্ডের এই ব্যাটারদের নাম। অ্যাসেজের প্রথম দিন বোলাররা অস্ট্রেলিয়াকে ফ্রন্ট ফুটে ঠলে দিয়েছেন। এবার কাজটা ব্যাটারদের। ব্যাট হাতে কামিন্স কতটা সফল হতে পারেন সেটা পরের কথা। ড্রেসিংরুমে বসে ব্যাটারদের কিভাবে অনুপ্রাণিত করতে পারেন সেটাই দেখার।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর