Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ৫ নভেম্বর, ২০১৯ ১১:২০

বিশ্বের অন্যতম দামি স্মার্টফোন

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের অন্যতম দামি স্মার্টফোন

বিশ্বের অন্যতম দামি স্মার্টফোন স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড। বিশ্ববাজারে ফোনটির দাম পড়ছে এক হাজার ৯৮০ ডলার।  ভারতের বাজারে দাম এক লাখ ৬৪ হাজার ৯৯৯ রুপি। 

গত ফেব্রুয়ারিতে প্রথম বিশ্বের সামনে এ ফোনটি তুলে ধরে স্যামসাং। শুরুতে ফোনটির দীর্ঘস্থায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠে। তাই সেসব সমস্যা সমাধান করে সম্প্রতি বাণিজ্যিকভাবে লঞ্চ হয় স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড। 

চীনা কোম্পানিগুলোর সস্তা ফোন আর অ্যাপলের দৌরাত্ম্যে স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন রাজত্ব যখন হুমকির মুখে তখন ফাইভজি সক্ষম ভাঁজ করা নতুন স্মার্টফোনটি দিয়ে আবারও বাজার ফেরাতে চায় স্যামসাং।

নতুন এ ডিভাইস দেখতে বর্তমান ফোনগুলোর মতো হলেও এটিকে বইয়ের মতো খোলা যাবে। যার আকার হবে ৭.৩ ইঞ্চি বা ১৮.৫ সেন্টিমিটার। এটি ভাঁজ করা অবস্থায়ও ৪ দশমিক ৬ ইঞ্চি ডিসপ্লের ফোন হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। এ ফোনে একসঙ্গে তিনটি অ্যাপ চালানো যাবে। অ্যাপ কন্টিনিউটি নামে ফিচার আছে, যাতে ডিভাইসটি এক মোড থেকে অন্য মোডে চালানো যাবে। ফোনটিতে ক্যামেরা রয়েছে ছয়টি। 

এর তিনটি পেছনে দুটি ভেতরে ও একটি সামনে। ফোনটি যেভাবেই ধরা হোক না কেন সেভাবে ছবি তোলা যাবে। এতে ৭ ন্যানোমিটার অক্টাকোর প্রসেসর, ১২ জিবি র্যাম, ৫১২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকছে। অ্যানড্রয়েড ৯.০ পাই ওএস চালিত। নতুন এ স্মার্টফোনে তার ছাড়াই চার্জ দেওয়া যাবে।

হুয়াওয়ের ম্যাট এক্স

হুয়াওয়ের ভাঁজ করা ফোন ম্যাট এক্স আগামী মাসে বাজারে আসছে। এ ফোনটির দাম পড়বে দুই হাজার ৪০০ ডলার। বাজারে এলে এটিই হবে বিশ্বের সবচেয়ে দামি স্মার্টফোন। ফাইভজি সক্ষম ফোনটিতে রয়েছে হুয়াওয়ের কিরিন ৯৮০ প্রসেসর এবং ব্যারং ৫০০০ মডেম। রয়েছে ডুয়েল-সেল ৪৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি, মাত্র আধা-ঘণ্টায় ৮৫ শতাংশ চার্জ হবে স্মার্টফোনটির।

৮ ইঞ্চি ট্যাবলেটের এ ফোনটি মুহূর্তেই ৬.৬ ইঞ্চি বা ৬.৩৮ ইঞ্চি স্মার্টফোনে রূপান্তর করা যাবে। এর উভয় পাশই স্ক্রিন হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। ওএলইডি সক্ষম টাচ স্ক্রিন, অ্যানড্রয়েড ৯.০ (পাই), তিনটি ক্যামেরা-৪০ এমপি, ৮এমপি ও ১৬এমপি। টিওএফ থ্রিডি ক্যামেরা। রয়েছে ৮জিবি র্যাম ও ৫১২ জিবি স্টোরেজ। চীনে আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে ১৬ হাজার ৯৯৯ ইউয়ানে বা ২ হাজার ৪০০ ডলারে বিক্রি শুরু হবে হুয়াওয়ের ম্যাট এক্স।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য