শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৮:০৩
প্রিন্ট করুন printer

'খাদ্য নিরাপত্তা ও প্রতিবেশ সংরক্ষণ' শীর্ষক অনলাইন সেমিনার

গাজীপুর প্রতিনিধি:

'খাদ্য নিরাপত্তা ও প্রতিবেশ সংরক্ষণ' শীর্ষক অনলাইন সেমিনার

ইকোলজিক্যাল সোসাইটি অব বাংলাদেশ এর দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন উপলক্ষ্যে সোমবার সন্ধ্যায় “খাদ্য নিরাপত্তা ও প্রতিবেশ সংরক্ষণ” শীর্ষক অনলাইন সেমিনার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো: গিয়াসউদ্দীন মিয়া। 

সেমিনারে মূখ্য আলোচক হিসাবে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কৃষি উন্নয়ন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব এবং চ্যানেল আই এর পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ। ইকোলোজিক্যাল সোসাইটি অব বাংলাদেশ এর সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষিতত্ত্ব বিভাগের প্রফেসর ড. এম. আব্দুল করিমের সভাপতিত্ব এবং সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কীটতত্ত¡ বিভাগের প্রফেসর ও বহিরাঙ্গন কার্যক্রম পরিচালক ড. মোঃ রুহুল আমীনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে বাংলাদেশ ও বহির্বিশ্ব থেকে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, বিভিন্ন সরকারী, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী কর্মকর্তা, বিজ্ঞানী, ছাত্র-ছাত্রী ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ সংযুক্ত হন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে প্রথম যে বিষয়টার উপর গুরুত্ব দেন সেটা হলো প্রতিবেশ রক্ষা, খাদ্য নিরাপত্তা, নিরাপদ খাদ্য ও পুষ্টিসম্মত খাদ্য উৎপাদন নিশ্চিত করা। আমরা সে লক্ষ্যেই এগিয়ে যাচ্ছি এবং দেশকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে কৃষি সেক্টরগুলোকে সবথেকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছি’। মন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে দেশকে ক্ষুধা মুক্ত ও খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের ক্ষেত্রে কৃষিবিদদের অবদানের কথা স্বীকার করেন। 

তিনি সোসাইটির সার্বিক কল্যাণ কামনা করে বলেন, ইকোলজিক্যাল সোসাইটি অব বাংলাদেশ তার প্রচার ও প্রকাশনার মাধ্যমে প্রতিবেশ সমুন্নত রেখে জমি চাষ, পরাগী ও পরভোজী পতঙ্গ সংরক্ষণ এবং কৃষিতে রাসায়নিক সার ও বালাইনাশকের যথোপযুক্ত ব্যবহার করে নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। তিনি সোসাইটির সদস্যদের পরিকল্পিতভাবে নগরায়ন, শিল্প ও কারখানা স্থাপন, নদী, খাল-বিল, হাওর, বনাঞ্চল, পাখি ও বন্য প্রাণি সংরক্ষণ সম্পর্কিত গবেষণা জোরদারকরণ, সুপারিশ প্রণয়ণ ও জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে ভুমিকা রাখার আহŸান জানান।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মোঃ রুহুল আমীন, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ও ইনস্টিটিউট অব বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের পরিচালক প্রফেসর ড. মো: তোফাজ্জল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর তোফায়েল আহমেদ, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইসস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মো: নাজিরুল ইসলাম, বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইসস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মো: শাহজাহান কবীর, বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম, জাতীয় কৃষি প্রশিক্ষণ একাডেমি (নাটা)’র মহাপরিচালক ড. মো: আখতারুজ্জামান এবং ইকোলজিক্যাল সোসাইটি অব বাংলাদেশ এর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সেতু কর্পোরেশনের নির্বাহী পরিচালক রুমান হাফিজ।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর