শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল, ২০২১ ২০:৫৬
প্রিন্ট করুন printer

আহত বিড়ালকে নিয়ে থানায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী

অনলাইন ডেস্ক

আহত বিড়ালকে নিয়ে থানায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী
রোমানা খাতুন। সঙ্গে তার আহত পোষা বিড়াল মিনি

গুরুতর আহত বিড়ালকে কোলে নিয়ে থানায় এলেন হাজী মো. দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পঞ্চম বর্ষের ছাত্রী রোমানা খাতুন। তার হাতে চিকিৎসাপত্র। দেখে মনে হলো একদিকে যেমন রেগে আছেন, অপরদিকে আদরের বিড়ালটি গুরুতর আহত হওয়ায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন তিনি। 

রোমানা বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার মাঝিড়া ইউনিয়নের সাজাপুর কাগজীপাড়ার বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা এ এস এম মুসার মেয়ে। তার আদরের পোষা বিড়ালের নাম মিনি। 

মাসুম (১৪) নামে প্রতিবেশী এক ছেলে রোমানা খাতুনের পোষা বিড়ালটিকে ঢিল ছুড়ে গুরুতর আহত করে। এ ঘটনায় রোমানা খাতুন রবিবার বিকালে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

রোমানা খাতুন গণমাধ্যমকে জানান, মিনি তার একমাত্র আদরের পোষা বিড়াল। ছোট থেকেই বিড়ালটিকে আদর-যত্নে বড় করেছেন। ভালোবেসে নাম দিয়েছেন মিনি। বর্তমানে মিনির তিনটি বাচ্চা। মিনির মুখ থেকে রক্ত ঝরতে দেখে তিনি ঠিকমতো পড়ালেখা করতে পারছেন না। পাশাপাশি পশুর ওপর নির্যাতনও মেনে নিতে পারছেন না। তাই ভবিষ্যতে যেন কোনো পশুর ওপর নির্যাতন করা না হয়, সে জন্য থানায় অভিযোগ করেছেন।

এ বিষযে অভিযুক্ত মাসুমের মা বলেন, ‘আমার শিশুপুত্র না বুঝে একটা ভুল করেছে। তাই বলে থানায় অভিযোগ করতে হবে। প্রতিহিংসাবসত হয়রানি করতেই থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।’

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ

 

এই বিভাগের আরও খবর