২ অক্টোবর, ২০২১ ১৬:২০

প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

অনলাইন ডেস্ক

প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। আজ শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের হলরুমে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মেসবাহ কামালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজ্জাম্মেল হক, এমপি। 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম এবং দ্বিতীয় সেশনে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক জনাব বিপ্লব বড়ুয়া সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজ্জাম্মেল হক, এমপি বলেন, প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় এদের প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলো মধ্যে অন্যতম খ্যাতিমান বিশ্ববিদ্যালয়। এখানকার পড়ালেখার মানও সন্তোষজনক। তবে আমাদের দেশের উন্নতির তুলনায় শিক্ষার মান কিছুটা পিছিয়ে আছে। এই জায়গাটাতে কাজ করতে হবে। আমি আশা করবো ভবিষ্যৎ প্রজন্ম গড়ে তুলতে প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কাজ করবে। কারণ প্রতিযোগিতামূল পৃথিবীতে যোগ্যতা দিয়েই টিকে থাকতে হবে।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষর্থীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আমরা কোয়ানটিটি স্টুডেন্ট চাই না বরং কোয়ালিটি স্টুডেন্ট চাই। সিটি কর্পোরেশন থেকে যদি প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ইন্টার্নশিপ করতে চায় তবে তাদের সুযোগ দেয়া হবে। পড়ালেখার পাশাপাশি নিজেদের ঘরবাড়ি, পরিবেশ নিজেদেরই পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। ঢাকা শহরটা অপরিকল্পিত ভাবে গড়ে উঠেছে। যারা ভূমিদস্যু, খাল দখল করছে, অপরিকল্পিত নগরায়ন করছে তাদের বিরুদ্ধে তরুণ প্রজন্মকে লড়তে হবে। অভিজাত এলাকায় যাদের সুয়ারেজ লাইনের বর্জ্য লেকে গিয়ে পড়েছে তাদের বিরুদ্ধে আগামী মাসে সিটি কর্পোরেশন থেকে অভিযান পরিচালনা করা হবে। এসব কাজে কমিউনিটিকে সংযুক্ত করা হবে।

দ্বিতীয় সেশনে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় উত্তর উত্তর সাফল্য কমনা করেন।

অনুষ্ঠানে "স্বাস্থ্যক্ষেত্রে সামাজিক অংশগ্রহণ: কোভিড-১৯ এর শিক্ষা"-শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বক্তা বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব হেল্থ সার্ভিসেস (বিইউএইচএস)-এর প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব প্রফেসর ড. লিয়াকত আলী।

সভাপতির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মেসবাহ কামাল বলেন, সবার সহযোগিতায় আমরা প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করতে পেরেছি। এই জন্য আমি সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ দিতে চাই। মূলত আমাদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ছিল আগস্টের ২৬ তারিখ (২০০৩)। কিন্তু শোকাবহ আগস্টের কথা মাথায় রেখে আমরা তা পিছিয়ে নিয়েছি। এটি জাতির পিতা ও তার পরিবারের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধার বর্হিপ্রকাশ। আমরা প্রাইমএশিয়াকে একটি বিশ্বমানের বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছি। পাশাপাশি আমরা প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে উচ্চ শিক্ষা দানের সুযোগ করে দিতে চাই। এই জন্য দেশে প্রথমবারের মতো আমরা মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের পাশাপাশি ট্রান্সজেন্ডার, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী, দলিত, হরিজন, বেদে সম্প্রদায় ও চা শ্রমিক প্রান্তীক জনগোষ্ঠীকে ৮০ থেকে ১০০ শতাংশ পর্যন্ত টিউশন ফি এর ওপর স্কলারশিপ দিচ্ছি। 

তিনি আরও বলেন, সিটি কর্পোরেশন থেকে যদি কেউ এখানে পড়তে আসতে চায় তাদেরও শতভাগ স্কলারশিপ দেয়া হবে। আমাদের গার্মেন্টস সেক্টরে এখনো ভারত-শ্রীলংকা থেকে প্রচুর ম্যান-পাওয়ার আনতে হয়। আমরা আমাদের টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের কারিকুলাম উন্নতি করার মাধ্যমে এই জায়গাটাতে অবদান রাখতে চাই। এই বিষয়ে আমরা গার্মেন্টস সেক্টরের পুরোধা পুরুষ মেয়র আতিকুল ইসলাম সাহেবের সঙ্গে পরামর্শ নেবো।

এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম, বিশ্বববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য প্রফেসর ড. আবদুল মোমিন চৌধুরী, নাট্য ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. আবদুল হান্নান চৌধুরী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য প্রদান করেন।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ভাইস চেয়ারম্যান রায়হান আজাদ বলেন, আমরা বিদেশে দক্ষ শিক্ষার্থী পাঠাতে চাই। যারা আমাদের জন্য রেমিটেন্স নিয়ে আসতে পারে। সরকার ও বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা আমাদের মূল ক্যাম্পাস তৈরির জন্য জন্য পূবাচলের ৩০০ ফিট এলাকায় উদ্যোগ নিয়েছিলাম। কিন্তু করোনার কারণে সেটা কিছুটা পিছিয়ে গেছে। শিগগির আমরা আবার উদ্যোগ গ্রহণ করবো।

গার্মেন্টস সেক্টরে ঢাকা উত্তর সিটি মেয়রের অবদানের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন,  রানা প্লাজা ধসের পর আমাদের তৈরি পোশাক খাতে ব্যাপক অবনমন হয়েছিল। কিন্তু মেয়র সাহেব বিভিন্ন দেশের সাথে যোগাযোগ করে পোশাক খাতে বিদেশি বিনিয়োগকে আবার চলমান করেছেন। আরএমজি সেক্টরে তার অবদান অসমান্য।

দিনের দ্বিতীয় সেশনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কালচারাল ক্লাবের আয়োজনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশের প্রখ্যাত সংগীত শিল্পী, প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেসের ডিন প্রফেসর ড. নাশিদ কামালে সঞ্চালনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (মনোনীত) প্রফেসর ড. মো. নুরুন্নবী মোল্লা, সকল ডিন, বিভাগীয় প্রধানগন ও প্রশাসনিক প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থী ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

 

বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ আল সিফাত

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর