২ জুন, ২০২৪ ২১:৩১

জাবিতে শিক্ষার্থীদের বাধার মুখেও চলছে বৃক্ষনিধন

উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

জাবিতে শিক্ষার্থীদের বাধার মুখেও চলছে বৃক্ষনিধন

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) শিক্ষার্থীদের বাধা উপেক্ষা করে ৪ টি একাডেমিক ভবন নির্মাণের কাজে প্রায় ৪ শতাধিক গাছ কেটে সয়লাব করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এরমধ্যে আজ রবিবার সকালে কলা ও মানবিকী অনুষদের বর্ধিতাংশ এবং চারুকলা অনুষদের নির্মাণ কাজে ২ শতাধিক ছোট-বড় বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কাটা হয়। উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন না করে অপরিকল্পিতভাবে যত্রতত্র অবকাঠামো নির্মাণে এসব গাছ কাটা হয়েছে বলে অভিযোগ শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের।

জানা যায়, ২০১৮ সালে সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের সময়ে জাবির অধিকতর উন্নয়নের জন্য ১ হাজার ৪৪৫ কোটি ৩৬ লাখ টাকার প্রকল্প অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এতে প্রকল্পের প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের ১৪টি স্থাপনা নির্মাণ কাজ শুরু করতে প্রায় হাজারখানেক গাছ কাটা হয়। তবে গাছ কেটে ভবন নির্মাণে বিভিন্ন সময়ে শিক্ষার্থীরা বাধা দিলেও তাতে কোনো লাভ হয়নি। সর্বশেষ আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আল-বেরুনী হল সংলগ্ন এলাকায় এবং প্রশাসনিক ভবনের পেছনের জঙ্গলে যথাক্রমে চারুকলা অনুষদ এবং কলা ও মানবিকী অনুষদের বর্ধিতাংশের নির্মাণ কাজ শুরু করতে প্রায় ২ শতাধিক গাছ কর্তন করে প্রশাসন। এর আগে, গত এক মাসে গাণিতিক ও পদার্থ বিষয়ক এবং জীববিজ্ঞান অনুষদের আনুভূমিক সম্প্রসারণ কাজে ২ শতাধিক গাছ কাটা হয়েছে। 

এদিকে উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন না করে অপরিকল্পিত একাডেমিক ভবন নির্মাণের কাজে গাছ কাটার প্রতিবাদে রবিবার মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও কর্মসূচি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, তাদের দীর্ঘদিনের মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের দাবিকে উপেক্ষা করে বিশ্ববিদ্যালয়ে যত্রতত্র ভবন নির্মাণের কারণে নির্বিচারে গাছ কাটা হচ্ছে। এসব গাছ কাটা বন্ধ না হলে তারা উপাচার্যের পতনের একদফা আন্দোলনের ডাক দেবেন। 

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম বলেন, উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা তৈরির কাজ চলছে। কিন্তু গাছ না কেটে ভবন নির্মাণের কাজ স্থগিতের বিষয়ে আমি এখন কিছু বলতে পারবো না। এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট ডিন সিদ্ধান্ত নিবেন।

কলা ও মানবিকী অনুষদের ডিন অধ্যাপক মোজাম্মেল হক বলেন, আমরা নতুন করে আর গাছ কাটবো না, তবে আমাদের অনুষদ নির্মাণের কাজ চলমান থাকবে। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর