শিরোনাম
প্রকাশ : ৬ মার্চ, ২০২১ ১৯:৫৮
প্রিন্ট করুন printer

সিলেটে মোটরসাইকেল চোর চক্রের হোতা বিএনপি নেতা!

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সিলেটে মোটরসাইকেল চোর চক্রের হোতা বিএনপি নেতা!

এক সময় ছিলেন পুরোদস্তুর রাজনীতিবীদ। রাজনীতিই ছিল তার ধ্যানজ্ঞান। ছিলেন উপজেলা বিএনপির শীর্ষ নেতাদের একজন। একসময় কোণঠাসা হয়ে পড়লে আগ্রহ হারান রাজনীতিতে। নাম লেখান মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটে। গড়ে তুলেন শক্তিশালী সিন্ডিকেট।

বলছিলাম, সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন মিয়ার কথা। গত বৃহস্পতিবার চোরাই মোটর সাইকেলসহ পুলিশের হাতে আটকের পর বের হয়ে এসেছে এ চাঞ্চল্যকর তথ্য। 

পুলিশের ভাষ্যমতে, সুজন মিয়া একজন পাকাপোক্ত মোটর সাইকেল চোর। তালা খুলে কয়েক মূহুর্তের মধ্যে মোটর সাইকেল গায়েব করে দিতে পারেন চুরিতে পারদর্শী সুজন মিয়ার।

সিলেট মহানগর পুলিশ সূত্র জানায়, গত ১ মার্চ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের একটি ভবনের সিঁড়ির নিচে মোটরসাইকেল রেখে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ২য় আদালতে যান বিপ্লব তালুকদার নামের এক ব্যক্তি। তিনি ওই আদালতে চাকরি করেন। বিকেলে ফেরার সময় দেখেন মোটর সাইকেল যথাস্থানে নেই। 

এ ঘটনায় বিপ্লব কোতোয়ালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে সিসি টিভি ফুটেজ দেখে চোরকে শনাক্ত করে অভিযানে নামে পুলিশ। অভিযান চালিয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে নগরীর আখালিয়া নয়াবাজার এলাকা থেকে চুরি হওয়া ‘ইয়ামা এফ জেড ভার্সন-৩’ মোটর সাইকেলসহ সুজন মিয়াকে আটক করা হয়। পরদিন শুক্রবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। 

আটক সুজন মিয়া কোম্পানীগঞ্জের কলাবাড়ির বাসিন্দা। তিনি বর্তমানে সিলেট মহানগরীর জালালাবাদ থানার বড়গুল এলাকায় বসবাস করছেন। তিনি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদকও ছিলেন।

সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালী থানার ওসি এসএম আবু ফরহাদ বলেন, সিসি টিভি ফুটেজ দেখে চোর শনাক্ত করে মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত সুজন মিয়াকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। 

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য