২১ নভেম্বর, ২০২১ ১০:২৪
বরখাস্ত মামলা গ্রেফতার অব্যাহত

আতঙ্কে অস্থির দুর্নীতিবাজরা

সাইদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম

আতঙ্কে অস্থির দুর্নীতিবাজরা

চট্টগ্রামে ভূমি উন্নয়ন কর, ভূমি অধিগ্রহণের টাকা আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে। এরই মধ্যে পাঁচজনকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বেশ কয়েকজনকে বদলি, কয়েকজনকে বরখাস্তের পাশাপাশি বিভাগীয় মামলা করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত ১৪ নভেম্বর চট্টগ্রাম নগরীর কাট্টলী সার্কেল ভূমি অফিসের ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা (তহশিলদার) শাহাদাত হোসেন ও অফিস সহায়ক এমদাদকে ১ কোটি ২৭ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে শাহাদাতকে পুলিশে সোপর্দ ও এমদাদকে দুদকের কাছে তুলে দেওয়া হয়। কর্ণফুলী ভূমি অফিসের আওতাধীন শিকলবাহা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে কর্মরত সুমন চৌধুরী চালান জালিয়াতির মাধ্যমে ভূমি উন্নয়ন করের ৩০ লাখ ৩৭ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। সুমন চৌধুরী এর আগে রাঙ্গুনিয়া ভূমি অফিসের আওতাধীন ঘাগড়া ইউনিয়ন ভূমি অফিসে কর্মরত থাকার সময়ও ভূমি উন্নয়ন করের প্রায় ৭১ লাখ ৬৩ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। এ বিষয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন তাৎক্ষণিক তার বিরুদ্ধে মামলা করে। অভিযুক্ত সুমন বর্তমানে পলাতক। ভূমি অধিগ্রহণ (এলএ) শাখায় ভুয়া আমমোক্তারনামা দিয়ে ২ কোটি ৮৬ লাখ টাকার ভূমি অধিগ্রহণের চেক উত্তোলন চেষ্টার অভিযোগে এলএ অফিসের সার্ভেয়ার খাজা উদ্দিন লিটন ও বাঁশখালীর এসি ল্যান্ডের চেইনম্যান নেজামুল করিমকে গ্রেফতার করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। এর মধ্যে চেইনম্যান নেজামুল করিম আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। তিনি জবানবন্দিতে এলএ অফিসে কর্মরত কিছু দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও দালালের নাম প্রকাশ করেছেন। ভুয়া আমমোক্তারনামায় অর্থ আত্মসাতের চেষ্টার অভিযোগেও এলএ অফিসের কর্মকর্তারা থানায় মামলা করেছেন। জানা গেছে, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের কার্যালয় ছাড়াও বিভিন্ন উপজেলা পর্যায়েও নড়েচড়ে উঠেছেন চিহ্নিত দুর্নীতিবাজরা। দুর্নীতির নেপথ্য কারিগরদেরও চিহ্নিত করা হচ্ছে বলে জানায় সূত্র। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, দুর্নীতির বিষয়ে কোনো আপস নেই। দুর্নীতি-অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকায় ইতিমধ্যে কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পাঁচজনকে জেলে পাঠানোর পাশাপাশি বরখাস্ত করা হয়েছে। বদলি করা হয়েছে কয়েকজনকে। দুর্নীতিবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর