Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০৯:৫৮

গুলশান থানায় হস্তান্তর করা হবে জি কে শামীমকে

অনলাইন ডেস্ক

গুলশান থানায় হস্তান্তর করা হবে জি কে শামীমকে

রাজধানীর ঠিকাদারির মাফিয়া গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীমকেকে আজ শনিবার সকাল ১১টায় গুলশান থানায় হস্তান্তর করা হবে। এরপর দুপুরে তাকে সিএমএম আদালতে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম। 

গতকাল শুক্রবার জি কে শামীমকে তার সাত সশস্ত্র দেহরক্ষীসহ আটক করে র‌্যাব। গতকাল সকাল থেকে নিকেতন এ-ব্লক, ৫ নম্বর রোডের ১৪৪ নম্বর বাড়িতে তার অফিসে র‌্যাব দীর্ঘ ১১ ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। এ সময় তার অফিস থেকে ১ কোটি ৮০ লাখ টাকা, ৯ হাজার ইউএস ডলার, ৭৫২ সিঙ্গাপুরি ডলার, ১৬৫ কোটি টাকার এফডিআর, অস্ত্র, বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব বলছে, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, অবৈধ কাজে বৈধ অস্ত্রের ব্যবহারসহ কয়েকটি সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে প্রথমে তার নিকেতন বি-ব্লক, ৫ নম্বর রোডের ১১৩ নম্বর বাড়ি থেকে আটক করে তল্লাশির জন্য তার অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। আটক বাকিরা হলেন মো. শহিদুল ইসলাম,  মুরাদ হোসেন, জালাল হোসেন, জাহিদুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম, সাজ্জাদ হোসেন, কামাল হোসেন।

জানা গেছে, জি কে শামীম যুবলীগের নেতা হিসেবে রাজধানীর সব সরকারি অফিসে ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণ করতেন। যুবলীগের একটি বিশাল গ্রুপও এসব ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণের সময় তার সঙ্গে থাকত। তার ভয়ে অন্য ঠিকাদাররা বিভিন্ন টেন্ডারে অংশ নিতেন না। অলিখিতভাবে গণপূর্ত, রাজউক, শিক্ষাভবন, পিডিবিসহ সরকারি অনেক প্রতিষ্ঠানে জি কে শামীম গংয়ের একচ্ছত্র আধিপত্য রয়েছে। ই-টেন্ডারের কারণে অনেকে কিছু ছোট ছোট কাজ পেলেও জি কে শামীমের ভয়ে তা ছেড়ে দিতে বাধ্য হতেন। তবে র‌্যাবের হাতে আটকের পরপরই যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে বলা হয়, জি কে শামীম নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি। তবে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, তিনি কমিটিতে নেই।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা 


আপনার মন্তব্য