শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:০৩
আপডেট : ১০ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:০৮

আবরার হত্যায় অমিত-মিজানুর জড়িত : ডিএমপি

অনলাইন ডেস্ক

আবরার হত্যায় অমিত-মিজানুর জড়িত : ডিএমপি
অমিত এবং মিজানুর (কালো টি শার্ট)

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহা এবং আবরারের সহপাঠী মিজানুর রহমান জড়িত। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান তিনি। 

এসময় তিনি বলেন, আবরার হত্যা মামলার এজাহারে অমিতের নাম নেই। কিন্তু এই হত্যাকাণ্ডে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে তার। অমিতের পাশাপাশি আবরারের সহপাঠী মিজানুর এবং আরাফাতেরও এ হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ততার তথ্য পাওয়া গেছে। এ কারণেই তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বুয়েটের শেরে বাংলা হল থেকে মিজানুর রহমানকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

ডিএমপির গণমাধ্যম শাখা থেকে জানানো হয়, মিজানুর রহমান বুয়েটের ওয়াটার রিসোর্সেস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৬তম ব্যাচের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। আবরার ফাহাদের সঙ্গে শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন মিজানুর রহমান। 

এদিকে, আবরার হত্যার ঘটনায় বেলা ১১ টার দিকে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক অমিত সাহাকে রাজধানীর সবুজবাগ এলাকা থেকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ।

প্রসঙ্গত, রবিবার দিবাগত গভীর রাতে বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের মরদেহ বুয়েটের শেরে-বাংলা হল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। অভিযোগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মারধরে তিনি মারা যান। 


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

close