শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২০ ১৪:০৮

পদ্মার চরে যুবকের গলা কাটা মরদেহ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

পদ্মার চরে যুবকের গলা কাটা মরদেহ
প্রতীকী ছবি

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার চকরাজাপুর ইউনিয়নের ৩ নম্বর কালিদাসখালি পদ্মার চর এলাকা থেকে জাকির হোসেন (২২) নামে এক যুবকের গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ছিলেন।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে বাঘা থানা পুলিশ। নিহত জাকির পদ্মার চরের আবদুল খালেক মোল্লার ছেলে। তার পেশা ছিল কৃষিকাজ।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, শনিবার সকালে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে পদ্মার চরে মটরের ক্ষেতের মধ্য থেকে যুবকের গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তবে কে বা কারা এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তা বলতে পারছেন না কেউই।

ধারণা করা হচ্ছে, শুক্রবার রাতের কোনো এক সময় তাকে হত্যা করা হয়। পূর্ব শত্রুতার জেরে এমন ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। এ ব্যাপারে আশপাশের লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তার সাথে কারও দ্বন্দ্ব ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

শনিবার দুপুরের মধ্যেই ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ রামেক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় আপাতত কাউকে আটক করা না গেলেও থানায় হত্যা মামলা হবে বলে জানান ওসি।

এদিকে, নিহতের বাবা আবদুল খালেক মোল্লা জানিয়েছেন, তার ছেলে জাকির শুক্রবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে বাড়ি থেকে পাশের কালিদাসখালি বাজারে ওষুধ আনতে যায়। তারপর আর বাড়ি ফেরেনি। তাকে রাতে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও পাওয়া যায়নি। তবে সকালে কালিদাসখালী এলাকার মটর ক্ষেতে তার মরদেহ পাওয়া যায়।

বাঘার চকরাজাপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আজিজুল আজম জানান, জাকিরকে শুক্রবার রাত থেকে তার পরিবার খুঁজছিল। শনিবার সকাল ৮টার দিকে সবজিচাষিরা মাঠে কাজ করতে যাওয়ার সময় মটর ক্ষেতের মধ্যে তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে খবর পেয়ে তিনিও ঘটনাস্থলে যান এবং জাকিরের মরদেহ চিনতে পারেন। পরে বাঘা থানা পুলিশকে খবর দিলে তারা গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য