শিরোনাম
প্রকাশ : ৬ এপ্রিল, ২০২০ ২১:১১
আপডেট : ৬ এপ্রিল, ২০২০ ২১:১১

বরিশালে বিভ্রান্তি ছড়ানোয় ভ্রাম্যমাণ আদালতে একজনের কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশালে বিভ্রান্তি ছড়ানোয় ভ্রাম্যমাণ আদালতে একজনের কারাদণ্ড

বরিশালে শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ সংক্রান্ত ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রমে বিভ্রান্তি ছড়ানোর দায়ে নগরীর বাংলাবাজার এলাকায় এক ব্যক্তিকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া শারীরিক দূরত্ব না মেনে দোকানে আড্ডাসহ গণজমায়েতের সুযোগ করে দেওয়ায় নগরীর আমতলা মোড় ও সাগরদী ব্রাঞ্চ রোডে ২ দোকানিকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

এছাড়া পৃথক ভ্রাম্যমাণ আদালত বিভিন্ন সড়কের মোড়ে, পার্কে, টিসিবি ও খাদ্য বিভাগের পণ্য বিক্রির স্থানে জটলা ছত্রভঙ্গ করে করোনা সংক্রমণ এড়াতে সবাইকে নিজ ঘরে থাকার জন্য হ্যান্ড মাইকে প্রচারণা চালায়। 

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াউর রহমান ও মো. নাজমুল হুদার নেতৃত্বে সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নগরীর বিভিন্ন স্থানে এই পৃথক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়। 

মো. জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত পুলিশের সহায়তায় নগরীর সদর রোড, বাংলাবাজার, চৌমাথা, নথুল্লাবাদ ও কাশীপুর এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় যেখানেই গণজমায়েত দেখেন সেখানেই থেমে থেমে করোনা সংক্রমণ এড়াতে সবাইকে নির্দিষ্ট শারীরিক দূরত্ব মেনে চলতে এবং নিজ ঘরে থাকতে হ্যান্ড মাইকে উদ্বুদ্ধ করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

নগরীর বাংলাবাজার এলাকায় গণজমায়েত বিরোধী এবং শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ সংক্রান্ত কার্যক্রম চলাকালে এক ব্যক্তি ভ্রাম্যমাণ আদালতের কর্মকাণ্ড নিয়ে নেতিবাচক কথাবার্তা বলেন এবং বিভ্রান্তি ছড়ান। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াউর রহমান স্থানীয় বাসিন্দা অলিউর রহমান চিশতিকে (৪৫) ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। পরে তাকে কারাগারে নিয়ে যায় পুলিশ। 

অপরদিকে র‌্যাবের সহায়তায় মো. নাজমুল হুদার নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত নগরীর আমতলা, সাগরদী, রূপাতলী ও কালিজিরা এলাকায় অভিযান পরিচালনাকালে যেখানেই গণজমায়তে দেখেন সেখানেই থেমে থেমে করোনা এড়াতে সবাইকে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে নিজ ঘরে থাকতে উৎসাহিত করেন। নগরীর আমতলা মোড়ে ও সাগরদী ব্রাঞ্চ রোডে মুদি কাম চায়ের দোকানে গণজমায়েত সৃষ্টি করায় জনগণকে বুঝিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয় এবং দুই দোকানিকে জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এছাড়া গণজমায়েত রোধ এবং শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে বরিশালে সেনাবাহিনী, র‌্যাব এবং পুলিশের জোরদার টহল চলছে। ট্রাফিক পুলিশ বিভিন্ন মোড়ে ও গুরুত্বপূর্ণ সড়কে চেকপোস্ট স্থাপন করে নির্দেশ অমান্যকারী যান আটকে দেয়। 

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য