শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৮:৫৮

কুকুর অপসারণের বিরোধিতা করে মানববন্ধন

অনলাইন ডেস্ক

কুকুর অপসারণের বিরোধিতা করে মানববন্ধন

রাজধানীর দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে কুকুর অপসারণ কার্যক্রমের বিরোধিতা করে বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন করছেন প্রাণি অধিকার কর্মীরা। 

শনিবার রাজধানীর রমনা এলাকায় কুকুর স্থানান্তর বন্ধে বিভিন্ন ব্যানার হাতে নিয়ে মানববন্ধন করে প্রাণি কল্যাণ সংগঠন কেয়ার ফর পজ। সাথে ছিল অভয়ারণ্য, পিপল ফর এনিমেল ওয়েলফেয়ার, স্টেলা ফাউন্ডেশন এবং এক বেলার আহার।

কেয়ার ফর পজের চেয়ারম্যান সৌরভ শামীম বলেন, কুকুর ময়লা আবর্জনা খেয়ে পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখে। নিরাপত্তা রক্ষীর কাজ করে। মানুষের প্রয়োজনেই কুকুর শহরে নিয়ে এসেছে মানুষ। হঠাৎ করে কুকুর অপসারণের সিদ্ধান্ত অমানবিক। কুকুরগুলো যেখানে ফেলে আসা হচ্ছে, সেখানে ওরা টিকে থাকতে পারবে না। কারণ বেশিরভাগ কুকুরকেই মানুষ খাবার দিতো। 

তিনি আরো বলেন, প্রাণি অধিকার রক্ষায় এতো বছরের পরিশ্রম বিফলে যাবে যদি কুকুরগুলো স্থানান্তর করে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়া হয়। দক্ষিণের মেয়রের প্রতি তিনি অনুরোধ জানান, যেন এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে কুকুর বন্ধ্যাত্বকরণের মাধ্যমে বংশবিস্তার নিয়ন্ত্রণে আনার পরিকল্পনা নেয়া হয়। পাশাপাশি যেন জলাতঙ্ক টিকা প্রদান করা হয়, তাহলে জনমনে ভীতি দূর হবে। 

কয়েক বছর ধরে প্রাণি অধিকার নিয়ে কাজ করছে কেয়ার ফর পজ। কেরাণীগঞ্জে সংস্থাটির প্রাণি আশ্রয়কেন্দ্র রয়েছে, যেখানে রাস্তা থেকে আহত প্রাণি উদ্ধার করে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করা হয়। দক্ষিণ সিটির এমন বর্বর সিদ্ধান্তের কারণে বিনামূল্যে পথ কুকুরের বন্ধ্যাত্বকরণ কর্মসূচিও শুরু করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি।

রাজধানীর দক্ষিণ সিটি থেকে কুকুর অপসারণের ঘোষণা দেয়ার পর থেকেই দক্ষিণের বিভিন্ন এলাকা থেকে গায়েব হয়ে যাচ্ছে কুকুর। এগুলোর মধ্যে কোনটা রাস্তার, কোনটা পোষা, কোনটা আবার কমিউনিটি কুকুর। গলায় বেল্ট পড়ানো, জলাতঙ্ক টিকা দেয়া, এমনকি বন্ধ্যাত্বকরণ করা কুকুরও গায়েব হয়ে যাচ্ছে। সিটি করপোরেশনের গাড়ি রাতের অন্ধকারে কুকুরগুলোকে অজ্ঞান করার ইনজেকশন দিয়ে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। ফেলে দিচ্ছে রাজধানীর অদূরে মাতুয়াইল এলাকায়। যেখানে কুকুরগুলোর খাওয়ার মতো কিছু নেই, চিকিৎসা দেয়ার কেউ নেই।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর