শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৫ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ মার্চ, ২০২০ ২১:৪৩

দেশের প্রথম ‘ডিজিটাল সিটি’ সিলেট

১২৬ পয়েন্টে ফ্রি ইন্টারনেট

শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট

১২৬ পয়েন্টে ফ্রি ইন্টারনেট

দেশের প্রথম ‘ডিজিটাল সিটি’ হিসেবে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে সিলেট। এর অংশ হিসেবে নগরীর ১২৬টি এক্সেস পয়েন্টে চালু হচ্ছে ফ্রি ইন্টারনেট সেবা। এর মধ্য দিয়ে নতুন প্রজন্মের ‘স্মার্ট সিটি’র পথে আরেক ধাপ এগিয়ে যাচ্ছে সিলেট। ফ্রি ওয়াইফাইর ইউজার নেম দেওয়া হয়েছে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’। আর পাসওয়ার্ড রাখা হয়েছে জাতীয় স্লোগান ‘জয় বাংলা’। ইতিমধ্যে প্রকল্পটির আওতায় নগরীর বিভিন্ন স্থানে ওয়াইফাই সংযোগ দেওয়া হয়েছে। ফলে বিভিন্ন স্থানে ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহারও শুরু হয়েছে। তবে পুরো প্রকল্পটির কাজ শেষ করতে আরও প্রায় এক মাস সময় লাগতে পারে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এরপর সিলেটের ১২৬টি পয়েন্টে একসঙ্গে দ্রুতগতিসম্পন্ন ওয়াইফাই সেবা পাওয়া যাবে। এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হওয়ার মধ্য দিয়ে সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের আরেকটি নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণ হবে বলে মনে করছেন সিলেটের মানুষ। নির্বাচনের আগে তিনি ‘আলোকিত উন্নত সিলেট’র যে স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন, তাতে সিলেটকে একটি স্মার্ট নগরী হিসেবে গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি ছিল। সে লক্ষ্যে পুরো নগরীকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা, ‘ওভারহেড ক্যাবল লাইন’ অপসারণ করে ‘আন্ডারগ্রাউন্ড’ করাসহ বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ এখন দ্রুত এগিয়ে চলছে। এসব উন্নয়ন কাজ শেষ হলে সিলেট পুরোপুরি স্মার্ট সিটিতে রূপান্তর হবে বলে মনে করছেন নগরবাসী। নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, জিন্দাবাজার, চৌহাট্টা, দরগাগেইট, বন্দরবাজার, কোর্টপয়েন্টসহ বিভিন্ন এলাকায় ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ ওয়াইফাইর সিগন্যাল পাওয়া যাচ্ছে। ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহার করে অনেকে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে ইন্টারনেট ব্রাউজ করতেও দেখা গেছে। তবে ব্যবহারকারীরা বলছেন ওয়াইফাইয়ে এখনো তারা কাক্সিক্ষত গতি পাচ্ছেন না।

 প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে প্রতিটি এক্সেস পয়েন্টে এক সঙ্গে ৫০০ জন যুক্ত হতে পারবেন। এর মধ্যে একসঙ্গে ১০০ জন উচ্চগতির ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন।

এ ব্যাপারে ‘ডিজিটাল সিলেট’ প্রকল্পের কর্মকর্তা মো. মহিদুর রহমান খান জানান, সিলেট নগরীর প্রায় সবকটি পয়েন্টে ওয়াইফাই সংযোগের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে।  কোনো এলাকায় ওয়াইফাইর রেঞ্জ ও গতি কি হবে সেগুলো নিয়ে কাজ চলছে। শিগগিরই কাজ শেষ করে ফ্রি ওয়াইফাইর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।

ডিজিটাল সিটি হিসেবে সিলেটকে বেছে নেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, ‘তাঁর আন্তরিকতা ছাড়া সিলেটকে ডিজিটাল সিটি করা সম্ভব হতো না। তথ্যপ্রযুক্তিতে তিনি দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন বলেই সিলেট ডিজিটাল সিটি হতে যাচ্ছে।’

যেসব স্থানে থাকছে এক্সেস পয়েন্ট : সিলেটের ১২৬টি এক্সেস পয়েন্টে পাওয়া যাবে ফ্রি ওয়াইফাই। এর মধ্যে গুরুত্ব বিবেচনায় একেকটি এলাকায় একাধিক এক্সেস পয়েন্টও রাখা হয়েছে। পয়েন্টগুলো হচ্ছে, জিন্দাবাজার, চৌকিদেখি, আম্বরখানা, দরগাগেইট, চৌহাট্টা, বন্দরবাজার ফুটওভার ব্রিজ, হাসান মার্কেট, সুরমা ভ্যালি রেস্ট হাউস, সার্কিট-হাউস, জালালাবাদ পার্ক, ক্বিন ব্রিজের দুই প্রান্ত, রেলওয়ে স্টেশন, বাস টার্মিনাল, কদমতলী পয়েন্ট, হুমায়ুন রশীদ চত্বর, আলমপুর পাসপোর্ট অফিস, বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়, সিলেট শিক্ষাবোর্ড, উপশহর রোজভিউ পয়েন্ট, শাহজালাল উপশহর ই-ব্লক ও বি-ব্লক, টিলাগড় পয়েন্ট, এমসি কলেজ, শাহী ঈদগাহ, কুমারপাড়া, দক্ষিণ বালুচর, টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, নাইওরপুল, মিরাবাজার, রায়নগর, সোবহানীঘাট পুলিশ ফাঁড়ি, ওসমানী শিশু উদ্যান, বন্দরবাজার জামে মসজিদ, নয়াসড়ক পয়েন্ট, কাজীটুলা, হাউজিং এস্টেট, সুবিদবাজার, মিরের ময়দান, পুলিশ লাইন, জেলা স্টেডিয়াম, মদন মোহন কলেজ, মির্জাজাঙ্গাল, জল্লারপাড়, খুলিয়াপাড়া, নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি, তালতলা হোটেল গুলশান, কাজিরবাজার সেতু, কাজিরবাজার সড়ক, সিলেট টেকনিক্যাল কলেজ, বাগবাড়ি ওয়াপদা, পাঠানটুলা, মদিনা মার্কেট, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় গেট ও ওসমানী মেডিকেল কলেজ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর