শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ মার্চ, ২০২০ ০৪:৫৪
প্রিন্ট করুন printer

সর্দি-জ্বরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির মৃত্যু, পুরো গ্রাম লকডাউন

অনলাইন ডেস্ক

সর্দি-জ্বরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির মৃত্যু, পুরো গ্রাম লকডাউন
প্রতীকী ছবি

মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার বাইলজুরি গ্রামে সর্দি-জ্বরে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এরপর ওই গ্রাম লকডাউন ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। 

বুধবার বিকাল ৩টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আইরিন আক্তার এই লকডাউন ঘোষণা দেন।

তিনি গণমাধ্যমকে জানান, ওই ব্যক্তি জ্বর-কাশিতে মারা গেছেন। তবে ওই গ্রামের সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা ও করোনা বিস্তার রোধে নিহতের পরিবারসহ ছয়টি পরিবারের ২৬ জন সদস্য এবং গ্রামটিকে লকডাউন করা হয়েছে। মৃত ব্যক্তির সঙ্গে করোনাভাইরাসের উপসর্গের মিল থাকায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

তিনি আরও জানান, প্রশাসনকে না জানিয়ে খুব সকালেই ওই ব্যক্তির মরদেহ দাফনের কাজ সম্পন্ন করে তার পরিবার। খবর পেয়ে মৃত ব্যক্তির বাড়িতে যায় উপজেলা প্রশাসন। পরে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ওই ব্যক্তি ঢাকার বাসায় জ্বর, কাশি নিয়ে গ্রামে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় মারা গেছেন।

মৃতের ভাই জানান, ঢাকার মেট্রোপলিটন মেডিকেল সেন্টারে ক্যাশিয়ার পদে চাকরি করতেন ওই ব্যক্তি। সপ্তাহখানেক আগে তিনি সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হন। হাসপাতাল থেকে তাকে ছুটি দিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়। এরপর থেকে তিনি বাসাতেই ছিলেন। মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান। ভোর ৪টার দিকে মরদেহ বাইলজুরি গ্রামে এনে জানাজা শেষে দাফন করা হয়।

শিবালয় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানিয়া সুলতানা জানান, লকডাউন ঘোষণার পর পুরো এলাকায় মাইকিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ৬টি বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার স্টিকার লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর