Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ মে, ২০১৯ ২০:০২

ঈদ উপলক্ষ্যে বিকাশে রেমিটেন্স আসার পরিমাণ বেড়েছে

অনলাইন ডেস্ক

ঈদ উপলক্ষ্যে বিকাশে রেমিটেন্স আসার পরিমাণ বেড়েছে

দেশের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতরকে কেন্দ্র করে মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস বিকাশে রেমিটেন্স আসার পরিমাণ বেড়েছে। রমজান মাসের প্রথম ১৫ দিনেই এবছরের এপ্রিল মাসে পাঠানো রেমিটেন্স এর প্রায় সমপরিমান রেমিটেন্স এসেছে। 

বিকাশ সূত্রে জানা যায়, রমজান মাসের প্রথম ১৫ দিনে বিকাশের মাধ্যমে ১০ কোটি টাকার ও বেশি পরিমাণে রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। অথচ এপ্রিল মাস জুড়ে পাঠানো রেমিটেন্সের পরিমাণ ছিল ১২ কোটি টাকার কিছু বেশি। এমনকি মার্চ মাসে বিকাশে পাঠানো রেমিটেন্সের পরিমণে ছিল একই রকম। অন্যদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যানুসারে মার্চ ২০১৯-এ সবগুলো মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিসে পাঠানো রেমিটেন্স এর পরিমাণ ছিল ১৪ কোটি টাকার কিছু বেশি। একমাসে আসা রেমিটেন্সের সাথে তুলনা করলে রমজানের প্রথম ১৫ দিনে আসা রেমিটেন্সের হার প্রায় দ্বিগুনের কাছাকাছি। সংশ্লিষ্টরা বলছেন ঈদ পর্যন্ত রেমিটেন্স হার আরো বাড়বে। 
ঝামেলা ছাড়াই, কম সময়ে ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে বিকাশে রেমিটেন্স পাঠানো সহজ বিধায় প্রবাসীরা এখন টাকা পাঠানোর জন্য বিকাশের মত মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিসগুলো ব্যবহার করছে। 
কুমিল্লার বাসিন্দা পলি আক্তার বলেন, আমার স্বামী মালেশিয়া থেকে টাকা পাঠায়। এখন আমার মোবাইলে বিকাশ একাউন্টে টাকা আসে বিধায় আমি ছাড়া আর কেউ জানতে পারে না। তাছাড়া এখন সব টাকা আমি একবারে ক্যাশআউট করি না। প্রয়োজন মত টাকা ক্যাশআউট করে খরচ করি।  
বাংলাদেশি শ্রমঘন দেশ মালেশিয়া, সংযুক্ত আরব আমিরাত, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, ওমান, ইটালি  ছাড়াও যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে বিকাশে তাদের প্রিয়জনের কাছে টাকা পাঠাচ্ছেন প্রবাসীরা।  

বিকাশের হেড অব কর্পোরেট কমিউনিকেশন্স শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম বলেন, বিকাশে পাঠানো রেমিটেন্স গ্রাহক সহজেই তার সুবিধাজনক সময়ে নিকটবর্তী এজেন্ট পয়েন্ট থেকে ক্যাশআউট করতে পারে। সহজ, দ্রুত, নিরাপদ ও বৈধ ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে এই লেনদেন অবৈধ হুন্ডিকে নিরুৎসাহিত করছে এবং দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রির্জাভকে দিনদিন আরো শক্তিশালী করছে। লাস্ট মাইল সলুস্যন্স প্রোভাইডার হিসেবে বিকাশ রেমিটেন্স গ্রহীতাদের কাছে ইতোমধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। 
তিনি আরো বলেন, এখন মোবাইল রিচার্জ, বিভিন্ন দোকানে পেমেন্ট করা, পল্লী বিদ্যুতের বিল সহ নানান ধরনের বিল দেয়ার মত সেবা গুলো চালু হওয়ায় গ্রাহকের সব টাকা ক্যাশআউট করারও প্রয়োজন হয় না। বিকাশ একাউন্ট থেকেই সরাসরি পেমেন্ট করে অনেক প্রয়োজন পূরণ করতে পারেন গ্রাহক। 
প্রবাসীদের কষ্টার্জিত অর্থ আরো কম খরচে প্রিয়জনের কাছে পৌঁছে দিতে রমজান ও ঈদ উপলক্ষ্যে রেমিটেন্স গ্রহীতাদের জন্য বিনামূল্যে ক্যাশআউট এর অফার দিয়েছে দেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল ফিনান্সিয়াল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ। রমজান মাস জুড়ে এবং জুনের ১০ তারিখ পর্যন্ত গ্রাহকের মোবাইলে প্রিয়জনের পাঠানো রেমিটেন্সের উপর ১.৮৫ শতাংশ বোনাস দিচ্ছে বিকাশ। ফলে এজেন্ট থেকে ক্যাশআউটে গ্রাহককে কোন বাড়তি টাকা খরচ করতে হচ্ছে না। একজন গ্রাহক একদিনে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা এবং ক্যাম্পেইন চলাকালীন সর্বোচ্চ ১৫০০ টাকা পর্যন্ত বোনাস পাবেন। ক্যাম্পেইন চলাকালীন সর্বোচ্চ ৫ বারের লেনদেনে বিকাশের এই অফার প্রযোজ্য হবে। ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে ০৬ মে ২০১৯, চলবে ১০ জুন ২০১৯ পর্যন্ত।   

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য