শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৫২

বেদেপল্লীতে হামলা ভাঙচুরে পাল্টা মামলা, আটক ৫

অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন

নোয়াখালী প্রতিনিধি

বেদেপল্লীতে হামলা ভাঙচুরে পাল্টা মামলা, আটক ৫

নোয়াখালী সদর উপজেলার পূর্ব এওজবালিয়া গ্রামে বেদেপল্লীতে কিশোর মৃত্যুর গুজবে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা হয়েছে। আহত কিশোর তারেক আজিজের বাবা দেলোয়ার হোসেন বাহার গ্রামবাসীর পক্ষে একটি মামলা করেন। এ মামলায় আসামি করা হয়েছে ১৩ বেদেকে। অপর মামলাটি করা হয় বেদে পক্ষ থেকে। ২৫ গ্রামবাসী নামোল্লেখসহ অজ্ঞাত দুই শতাধিক ব্যক্তিকে এ মামলায় আসামি করা হয়। পুলিশ পাঁচ গ্রামবাসীকে আটক করেছে। এলাকায় স্থাপন করা হয়েছে অস্থায়ী পুলিশ। স্থানীয় এমপি একরামুল করিম চৌধুরী, জেলা প্রসাসক ও পুলিশ সুপার গতকাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ সময় এমপি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে নগদ অর্থ প্রদান এবং সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দেন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত শুক্রবার বেদেপল্লীর এক কিশোরী স্থানীয় দোকানে আইসক্রিম কিনতে গেলে দোকানি অশালীন মন্তব্য করে। এ নিয়ে বেদেদের সঙ্গে দোকানি ও স্থানীয়দের বাগিবতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় তারেক আজিজ (১৭) নামে এক কিশোর দোকানের গরম তেলের কড়াইয়ে পড়ে ঝলসে যায়। সে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। সোমবার দুপুরে এলাকায় তারেকের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়লে তার স্বজন ও এলাকাবাসী বেদে পল্লীতে হামলা চালায়। বেদে সর্দার ওয়াসিম জানান, ছয় বছর ধরে শতাধিক বেদে পরিবার পূর্ব এওজবালিয়া গ্রামে নিজস্ব ভূমিতে বাস করে আসছে। বখাটেরা প্রায়ই তাদের মেয়েদের উত্ত্যক্ত করেছে। সোমবারের ঘটনায় তাদের ৩২টি ঘর, ১০টি তাঁবু ও ২৫টি খুপরি ঘরে ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয়।

 


আপনার মন্তব্য