মঙ্গলবার, ২৯ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা

সেই ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

সালিশ বৈঠকে কিশোরীকে বিয়ে করায় বাউফল উপজেলার কনকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সেই চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকাল স্থানীয় সরকার বিভাগ তাকে বরখাস্ত করে আদেশ জারি করে। এদিকে ওই ইউপি চেয়ারম্যানসহ ছয়জনের নামোল্লেখ করে পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা করা হয়। বিচারক জামাল হোসেন মামলাটি গ্রহণ করে ৩০ দিনের মধ্যে জেলা পিবিআই প্রধানকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। গতকাল মামলাটি করেন কিশোরীর প্রেমিক রমজানে হাওলাদারের ভাই হাফেজ আল ইমরান।

 বহিষ্কারের আদেশে বলা হয়, সালিশ করতে গিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে বিয়ে ঘটনায় স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইনে অপরাধ সংঘটিত করায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

গত শুক্রবার ওই কিশোরীকে বিয়ে করেন ইউপি চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার। ওই কিশোরীর সঙ্গে স্থানীয এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিশোরীর বাবা বিষয়টি চেয়ারম্যানকে জানালে তিনি সালিশ ডেকে নিজে পছন্দ হওয়ায় কিশোরীকে বিয়ে করেন। একদিন পর ওই কিশোরী নিজেই চেয়ারম্যানকে তালাক দেন।