শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২০:০৫

আড়াই মাস পর মিয়ানমার থেকে এলো পিয়াজ ভর্তি ট্রলার

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

আড়াই মাস পর মিয়ানমার থেকে এলো পিয়াজ ভর্তি ট্রলার

করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ আড়াই মাস বন্ধের পর কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দরে মিয়ানমার থেকে এসেছে ৩০ মেট্রিক টন পিয়াজ। 

শুক্রবার সকালে পিয়াজ নিয়ে একটি ট্রলার টেকনাফ স্থলবন্দর ঘাটে এসে পৌঁছায়। তবে কাগজপত্র জমা দিলে আমদানিকৃত পিয়াজগুলো শনিবার সকালে খালাস শেষে ট্রাকে করে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো সম্ভব বলে বন্দর সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

টেকনাফ স্থলবন্দরের শুল্ক কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন বলেন, ফের মিয়ানমার থেকে পিয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। আজ শুক্রবার ৩০ মেট্রিক টন পিয়াজ স্থলবন্দরে এসে পৌঁছেছে। এসব পিয়াজ যত দ্রুত সম্ভব খালাস করে বাজারে পৌঁছানো হবে।

টেকনাফ শুল্ক বিভাগ জানায়, মিয়ানমার থেকে এ বন্দর দিয়ে গত নভেম্বর মাসে ২১ হাজার ৫৬০ মেট্রিক টন পিয়াজ আমদানি হয়েছে। এছাড়া অক্টোবর মাসে ২০ হাজার ৮৪৩ মেট্রিক টন পিয়াজ আমদানি হয়। সেপ্টেম্বর মাসে আমদানি হয় ৩৫৭৩ দশমিক ১৪১ মেট্রিক টন পিয়াজ এবং আগস্ট মাসে এসেছে ৮৪ মেট্রিক টন। আরও পিয়াজ ভর্তি ট্রলার আসার পথে রয়েছে।

টেকনাফ স্থলবন্দরের আমদানিকারক উসমান বলেন, করোনার কারণে দীর্ঘ আড়াই মাস বন্ধের পরে মিয়ানমার থেকে ৩০ মেট্রিক টন পিয়াজ আমদানি করছি। আমদানিকৃত পিয়াজ দ্রুত সময়ে খালাস করা হচ্ছে। আরও পিয়াজ ভর্তি ট্রলার আসার পথে রয়েছে।

টেকনাফ স্থলবন্দরের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আড়াই মাস পর মিয়ানমার থেকে শুক্রবার সকালে দু’টি ট্রলারে করে ৩০ মেট্রিক টন পিয়াজ এসেছে। কাগজপত্র বুঝে পেলে শনিবার খালাস করা হবে। সংকট মোকাবিলায় ব্যবসায়ীদের পিয়াজের আমদানি বাড়াতে উৎসাহিত করা হচ্ছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর