শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৮:১৯
আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৮:২৮

১৩ লাখ টাকার ব্রিজ দুই বছরে শেষ!

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

১৩ লাখ টাকার ব্রিজ দুই বছরে শেষ!

বগুড়ার সোনাতলায় ১৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত একটি ব্রিজ দুই বছরের মাথায় ভেঙে পড়েছে। এতে যাতায়াত বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এলাকাবাসী দুর্ভোগে পড়েছেন।

জানা যায়, সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের ভেলুরপাড়া চারমাথা বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন গাক অফিসের পাশে সিংড়ার পাড়া খালের উপর ব্রিজের অবস্থান। বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএডিসি) অর্থায়নে ২০১৯ সালে ১৩ লাখ ৫৭ হাজার ২০০ টাকা ব্যয়ে ১৫ মিটার দীর্ঘ এই ব্রিজ নির্মাণ করা হয়।

কিন্তু মাত্র দুই বছরের মাথায় ব্রিজটি ভেঙে পড়ে পথচারীসহ সকল প্রকার যানচলাচল বন্ধ হয়েছে। এখন নতুন করে নির্মাণের কথা বলা হলেও নির্মাণ হচ্ছে না। এতে এলাকাবাসীকে দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে।

ব্রিজের উপর দিয়ে যানবাহন ও এলাকাবাসী যাতায়াত শুরু করতে না করতেই গত বছরের বন্যায় ব্রিজটির মাঝখানের স্লিপার দেবে যায়। ফলে ব্রিজটি উত্তর দিকে হেলে পড়ে। এবারে বন্যার পানির স্রোতে সেই ব্রিজটি ভেঙে ধসে পড়েছে। কাজটি বাস্তবায়ন করে বগুড়ার মেসার্স বিদ্যুৎ এন্টার প্রাইজ।

জোড়গাছা ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মণ্ডল জানান, গত বছর ব্রিজটির মাঝখানের স্লিপার উত্তর দিকে হেলে পড়ে। আর এবার তা ভেঙে পড়েছে। 

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন বিএডিসি বগুড়া জোনের পিডি এসএম শহিদুল ইসলাম জানান, গত বছরের ভয়াবহ বন্যায় ভেসে আসা একটি বাঁশঝাড় ওই ব্রিজের সাথে আটকে গিয়ে প্রবল স্রোতে ঘূর্ণিপাকের সৃষ্টি হয়। এতে করে ব্রিজটির নিচে থেকে মাটি সরে যায় এবং ব্রিজের স্লিপার দেবে গিয়ে হেলে পড়ে।

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন বিএডিসি বগুড়া জোনের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মনিরুল ইসলাম জানান, ২০১৯ সালে মূলত বন্যার কারণে ব্রিজটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নিজ খরচে নতুন করে ব্রিজটি করে দিতে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। নির্মাণকাজ দ্রুত শুরু করে দিতে বলা হয়েছে। 

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর