শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ অক্টোবর, ২০২০ ১৯:২২

কুড়িগ্রামে ২ হাজার ২৭৪ হেক্টর জমির ফসলের ক্ষতি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামে ২ হাজার ২৭৪ হেক্টর জমির ফসলের ক্ষতি

কুড়িগ্রামে গত তিন দিনের টানা বৃষ্টিতে বিভিন্ন উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে রোপা আমন ধানসহ শীতকালীন শাকসবজির।

কৃষি বিভাগ জানায়, কুড়িগ্রামের সদর উপজেলাসহ ৯ উপজেলার বিভিন্ন ফসলের ক্ষেতে পানি ওঠায় এ ক্ষতি হয়েছে। তারা ধারণা করছে, রোপা আমন ধানক্ষেত নুইয়ে পড়ায় প্রায় শতকরা ৪০ শতাংশ ধান পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যাবে।

এদিকে, সদ্য চাষ হওয়া ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, বেগুন ও বরবটিসহ নানা সবজি ক্ষেতেও পানি উঠেছে বলে বিভিন্ন এলাকার কৃষকরা জানিয়েছেন। এসব সবজির অধিকাংশ ফুল ও ফল পানিতে ঝড়ে গেছে। অনেক জায়গায় আধা পাকা আমন ধান মাটিতে নুইয়ে পড়েছে। এছাড়াও কিছু আউশ ধানক্ষেতও হেলে পড়েছে। এতে ফলন বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছে অনেক কৃষক।

রাজারহাট উপজেলার উমর মজিদ ইউনিয়নের ফরকেরহাট এলাকার কৃষক চাঁদ মিয়া জানান, কয়েকদিনের বৃষ্টি ও দমকা হাওয়া বাতাসে আমাদের উঠতি আমন ধানের বেশ ক্ষতি হয়েছে। বিশেষ করে ধানের গোড়া ভেঙে পড়ায় আমরা চিন্তিত। কিছু আধা পাকা ধানও এতে রয়েছে। বৃষ্টির কারণে কিছু জমির আবাদ নষ্ট হয়ে যাবে।

সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ি এলাকার কৃষক দসিম মিয়া জানান, কয়েকদিন আগেও আমাদের সবজি ক্ষেতে পানি ওঠে। আবার টানা তিন দিনের বৃষ্টিতে বেশ কিছু সবজি ক্ষেতে পানি উঠেছে। এতে ক্ষতি হতে পারে নতুন উঠতি সবজিগুলোর।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক কৃষিবিদ শামসুদ্দীন মিয়া কৃষকদের ক্ষতির কথা স্বীকার করে বলেন, টানা কয়েকদিনের বৃষ্টিতে জেলার ৯ উপজেলার ২ হাজার ২৭৪ হেক্টর জমির রোপা আমন ধানসহ সবজি ক্ষেত নুইয়ে পড়েছে। তবে আমনের ক্ষতি হবে প্রায় ৪০ শতাংশ। এ অবস্থায় কৃষকদের প্রায় ১৪ কোটি টাকার ফসল ক্ষতি হবে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছে। 

বিডি প্রতিদিন/এমআই

BP

আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর