শিরোনাম
প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর, ২০২০ ২০:৫৩
আপডেট : ২৯ নভেম্বর, ২০২০ ২০:৫৬
প্রিন্ট করুন printer

দিনাজপুরে দুই মাথা ও চার চোখ বিশিষ্ট বাছুরের জন্ম

দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুরে দুই মাথা ও চার চোখ বিশিষ্ট বাছুরের জন্ম

এক কৃষকের বাড়িতে গরুর অদ্ভুদ আকৃতির ফ্রিজিয়ান জাতের বাছুরের জন্ম হয়েছে। জন্ম নেয়া বাছুরটির দুইটি মাথা, চারটি চোখও রয়েছে। বাছুরটির দুই মাথাই কর্মক্ষম। জন্মের পর অদ্ভুত এই বাছুরটি তার দুই মুখ দিয়েই দুধ খাচ্ছে। এই অদ্ভুদ আকৃতির বাছুরটি দেখার জন্য ওই কৃষকের বাড়ীতে উৎসুক মানুষ ভিড় জমাচ্ছে। 

বিরল এ ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

গরুটির মালিক দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার শিবরামপুর ইউনিয়নের আরাজি মিলনপুর গ্রামের মিলন বাজারের পশ্চিম পাশে জসিম উদ্দিনের ছেলে মোসলেম উদ্দিন।

কৃষক মোসলেম উদ্দিন জানান, শনিবার বিকেল ৩ টায় বাছুরটি তার বাড়িতে জন্ম গ্রহণ করে। জন্মের পর বাছুরের দুই মাথা এবং চারটি চোখ থাকলেও শরীরের বাকী সব স্বাভাবিক রয়েছে। যদিও স্বাভাবিক নিয়মে বাছুরটি জন্ম হওয়ার কথা ছিল আগামী ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে। কিন্তু ৭ মাসেই এ বাছুরের জন্ম হওয়ায় বেশ দুর্বল এবং অসুস্থ রয়েছে। জন্ম নেওয়া এই সাদাকালো রংয়ের ফ্রিজিয়ান জাতের বাছুরটি এখন পর্যন্ত জীবিত আছে। তবে এর পূর্বে ওই গরুর গর্ভে জন্ম নেওয়া দুইটি বাছুর স্বাভাবিক ছিল বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে বীরগঞ্জ উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের ভেটেনারী সার্জন ডা. মোঃ ইউনুস আলী জানান, কনজিমেটাল অ্যাবনরমালিস্ট  এবং জেনিটেক ডিফেক্ট এর কারণে এ ধরণের ঘটনা ঘটে থাকে। তবে এ ধরণের বাছুর সাধারণত বাঁচে না। তারপর ৭ মাসে জন্মগ্রহণ করেছে। তাই স্বাভাবিকভাবে এটাকে গর্ভপাত বলা যায়। তবে বাছুরটিকে বাঁচাতে আমাদের প্রাণপণ চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

বীরগঞ্জ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ মুহিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গরুটির বাছুর প্রসব করার কথা ১০মাসে। কিন্তু ৭মাসে জন্ম নেওয়া অস্বাভাবিক বাছুরটিকে বাঁচাতে ইনকিউবেটর প্রয়োজন। কিন্তু উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে এ ধরণের উন্নত চিকিৎসা সুবিধা দেয়া সম্ভব নয়। তবে বাচাঁনোর চেষ্টা করা হচ্ছে।  

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর