শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২০:১৫
প্রিন্ট করুন printer

ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি

ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে
ইউপি চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ। ফাইল ছবি

ফের কারাগারে গেলেন রাঙামাটির বরকল উপজেলার ভুষণছড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ ওরফে মামুন। এবার তাকে কারাগারে যেতে হল ধর্ষণ মামলায়। 

আজ মঙ্গলবার রাঙামাটির আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালে জামিন চেয়ে আবেদন করতে গেলে জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন জেলা ও দায়রা জজ মো. নুরুল ইসলাম। 

এর আগে এক বন মামলায় গত বছর ৯ অক্টোবর গ্রেফতার হয়ে কারাগারে যেতে হয়েছে ওই ইউপি চেয়ারম্যানকে। পরে তদবিরে ওই বন মামলায় জামিন পান তিনি। আদালত সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। 

জানা যায়, ধর্ষণের অভিযোগে গত বছর ২৪ জুন বরকল থানায় বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভুষণছড়া ইউপি চেয়ারম্যান মামুনের বিরুদ্ধে মামলা (নম্বর-২ তারিখ-২৪/০৬/২০২০) দায়ের করেছেন ধর্ষিতার বাবা মো. নাছির উদ্দিন হাওলাদার। মামলার পর গ্রেফতার এড়াতে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান আসামি মামুন। মামলাটির অভিযোগ গঠন হয় রাঙামাটির আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালে।

পরে উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে আসেন তিনি। এরপর মামলায় গত বছর ২১ অক্টোবর রাঙামাটির আদালতে হাজিরার আদেশ ছিল। কিন্তু পরে আদালতে আর হাজির হননি। মঙ্গলবার জামিন চেয়ে আদালতে আবেদন করতে গেলে তার জামিন নামঞ্জুর করেন আদালত। তাৎক্ষণিক আদালত থেকে গ্রেফতার করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

ওই ইউপি চেয়ারম্যান মামুনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা ছাড়াও মারামারি, দুর্নীতি, বন মামলাসহ অনেক অভিযোগ রয়েছে বলে জানা গেছে। এসব অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় গত বছর ৫ জুলাই তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। তার আগে বরকল উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ছিলেন মামুন।

মামলার বাদী ও একই ইউনিয়নের ছোটহরিণার বাসিন্দা মো. নাছির উদ্দিন হাওলাদার বলেন, বিয়ে ও চাকরির প্রলোভনে মামুন চেয়ারম্যান আমার মেয়ের (২০) সর্বনাশ করেছে। উপযুক্ত বিচারের জন্য সর্বশেষ নিজে বাদী হয়ে বরকল থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামুনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছি।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর