শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪৩
আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪৯
প্রিন্ট করুন printer

কালিয়াকৈরে গন্ধগোকুল বাসস্থান হারিয়ে পরিত্যক্ত বাড়িতে

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি

কালিয়াকৈরে গন্ধগোকুল বাসস্থান হারিয়ে পরিত্যক্ত বাড়িতে

গাজীপুরের কালিয়াকৈরের চা বাগান এলাকায় বিপন্ন প্রজাতির গন্ধগোকুল বাসস্থান হারিয়ে এখন আশ্রয় নিয়েছে পরিত্যক্ত বাড়িতে। উপজেলার চা বাগান এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আতাউর রহমানের বাড়িতে তার পরিত্যক্ত একটি বাথরুমে একটি বিশাল আকারের গন্ধগোকুল আশ্রয় নিয়েছে।

এলাকার বন উজাড় হওয়ায় এসব বন্যপ্রাণীর আবাসস্থল নষ্ট হয়েছে। তাই এখন আশ্রয় নিচ্ছে মানুষের বাড়িসহ বাড়ির আশপাশের সবজি বাগানে। কয়েক বছর আগেও প্রচুর পরিমাণে বন জঙ্গল ছিল। তখন বনে নানা প্রকার বন্যপ্রাণী দেখা যেত। কিন্তু বর্তমানে বনের গাছপালা উজার হয়ে যাওয়ায় এখন আর বন্যপ্রাণীর দেখা যায় না।

গন্ধগোকুল দেখার জন্য বিভিন্ন এলাকার মানুষ দেখতে আসছে। খবর পেয়ে শনিবার বিকেলে ঢাকা থেকে বাংলাদেশ ওয়ার্ল্ড লাইফ রেস্কিউ স্কাউট ইউনিটের লোকজন উদ্ধারে আসেন। কিন্তু প্রাণীটি গর্ভবতী থাকায় নিরাপদ আশ্রয় মনে করে সেখানে রেখে চলে যান। গন্ধগোকুলকে অহেতুক অত্যাচার বিরক্ত না করার জন্য বাড়ির লোকজনসহ আশপাশের লোকদের অনুরোধ করেন।

বাড়ির মালিক কাজী আতাউর রহমান জানান, বিশাল আকারের গন্ধগোকুল আশ্রয় নিয়েছে তার বাথরুমে। বাড়ির সবাই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। যেকোনো সময় বন্যপ্রাণী গন্ধগোকুলটি তাদের ওপর আক্রমণ করতে পারে। গন্ধগোকুল উদ্ধার করে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক অথবা নিরাপদ স্থানে ছেড়ে দেওয়ার জন্য বন বিভাগের কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানান তিনি।

বাংলাদেশ ওয়ার্ল্ড লাইফ রেস্কিউ স্কাউট ইউনিটের জুনিয়র অফিসার সাদিকুল ইসলাম জানান, গন্ধগোকুল সাধারণত ফলমূল এবং ইঁদুর খেয়ে জীবনযাপন করে। এরা কখনো মানুষের ওপরে আক্রমণ করে না শান্ত প্রকৃতির প্রাণী। গন্ধগোকুলটি গর্ভবতী বাচ্চা প্রসব করার জন্য নিরাপদ আশ্রয়স্থল হিসেবে পরিত্যক্ত বাড়ির বাথরুম বেছে নিয়েছে। বাচ্চা প্রসবের পর এটা এমনিতেই চলে যাবে। এটাকে অহেতুক অত্যাচার বিরক্ত না করার জন্য বাড়ির লোকজনসহ আশপাশের লোকদের অনুরোধ করেন তিনি।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর