শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল, ২০২১ ১৯:৫৫
প্রিন্ট করুন printer

সালিসে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, ইউপি সদস্যসহ আহত ১২

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

সালিসে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, ইউপি সদস্যসহ আহত ১২
আহত কয়েকজন

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পাওনা টাকা নিয়ে সালিসে দুই পক্ষের সংঘর্ষে এক ইউপি সদস্যসহ অন্তত ১২ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়নের শেহালা গ্রামে এ সংঘর্ষ হয়। আহতদের কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শেহালা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পলাশ রহমান ওই বিদ্যালয়ে চাকরি দেওয়ার নাম করে একই এলাকার রাকিকুল, জামসেদ ও মাফুর কাছ থেকে সাড়ে ১৩ লাখ টাকা নেন। পরে চাকরি দিতে না পারায় তার কাছ থেকে টাকা ফেরত চান চাকরিপ্রার্থীরা। পলাশ টাকা ফেরত দিতে গড়িমসি করলে তিন চাকরিপ্রার্থী শেহালা গ্রামের ইউপি সদস্য রিন্টু আলীর কাছে বিচার দেন। ইউপি সদস্য ঝন্টু শুক্রবার শেহালা গ্রামের জটুর ঘুনার বটতলায় দুই পক্ষকে নিয়ে সালিস বৈঠকে বসেন। তখন উভয়পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে পলাশ, পাশা, ইছাহক ও রানা ক্ষুব্ধ হয়ে রিন্টু মেম্বারের ওপর হামলা চালান। এতে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ২০-২৫ জন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে একে অপরের ওপার হামলা করেন। 

তখন ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ায় ঘটনাও ঘটে। সংঘর্ষে কমপক্ষে ১২ জন আহত হন। তাদের মধ্যে ইউপি সদস্য রিন্টু মেম্বর (৩৫), আসাদুল (৪৫), ফাকু (৪৭), কিতাব (৪২), আনিসুর (৩৫) ও গেদা (৩৬) এবং পলাশ (৩৫), পাশা (৩২), ইছাহক (৪০), আকরাম (৩৫), রানা (৩০) ও খেজমতকে (৪০) কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দৌলতপুর থানার ওসি (তদন্ত) শাহাদত হোসেন জানান, শেহালা গ্রামে দুই পক্ষের সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। থানায় কেউ অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বর্তমানে ওই এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।   

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


 


 

 

এই বিভাগের আরও খবর